BREAKING NEWS

১২ মাঘ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৬ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্ত্রীকে ইসলাম ধর্মকে গ্রহণ করতে চাপ দেওয়ার অভিযোগ, মধ্যপ্রদেশে ধৃত যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: December 1, 2020 2:02 pm|    Updated: December 1, 2020 2:03 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাভ জেহাদ রুখতে কয়েকদিন আগেই আইন এনেছে মধ্যপ্রদেশের সরকার। আর এর মধ্যেই স্ত্রীকে ইসলাম ধর্মকে গ্রহণ করতে চাপ দেওয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার হল সেখানকার এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের শাদোল জেলায়। ধৃতের নাম ইরশাদ খান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ২০১৮ সালে হিন্দু ধর্মের এক যুবতীকে বিয়ে করেছিল শাদোল (Shahdol) জেলার বাসিন্দা ইরশাদ খান (Irshad Khan) নামে ওই যুবক। প্রথম দু বছর কোনও গন্ডগোল না থাকলে কয়েকমাস আগে হঠাৎ একদিন নিজের স্ত্রীকে নমাজ পড়ার জন্য চাপ দেয় ইরশাদ। ইসলামিক রীতিনীতি মেনে জীবন কাটানোর পরামর্শও দেয়। আরবি ও উর্দু শেখার জন্য জোরাজুরি করতে থাকে। কিন্তু, তাতে রাজি হয়নি অভিযোগকারিণী যুবতী। এর জেরে তাঁর উপর অকথ্য অত্যাচার করতে থাকে ইরশাদ ও তার পরিবারের সদস্যরা। বাধ্য হয়ে গত রবিবার স্থানীয় থানায় গিয়ে স্বামীর নামে অভিযোগ দায়ের করেন ওই যুবতী। তার ভিত্তিতে সোমবার অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: SCO মঞ্চে সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে পাকিস্তানকে তুলোধোনা ভারতের]

এপ্রসঙ্গে শাদোল জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মুকেশ ব্যাস, রবিবার ২৭ বছরের ওই যুবতী অভিযোগ দায়ের করার পরেই অভিযুক্ত ২৮ বছরের ইরশাদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পরে মামলা করা হয়েছে মধ্যপ্রদেশ ধর্মীয় স্বাধীনতা আইন (Madhya Pradesh Freedom of Religion Act) , ১৯৬৮ -এর ৩, ৪ ও ৫ এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৯৮-এ ধারায়।

এদিকে তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে ওই যুবক ইরশাদ। এপ্রসঙ্গে সে বলে, বিয়ের আগে ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে হলফনামা জমা দিয়ে আমার স্ত্রী বলেছিল যে আমার ধর্ম সম্পর্কে জানে। এবং আমাকে বিয়ে করতে চায়। এরপরে আমরা নিকাহও করি। কিন্তু, এখন ব্যক্তিগত বিষয়ে ধর্মকে জড়িয়ে অযথা সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করার চেষ্টা করছে।

[আরও পড়ুন: চিকিৎসকদের পরামর্শ উপেক্ষা করেই ভোটের ময়দানে রজনীকান্ত? জল্পনা তুঙ্গে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement