২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভারতকে দেশীয় অস্ত্রে লড়তে হবে, ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র সওয়াল সেনাপ্রধানের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 8, 2018 8:08 am|    Updated: January 8, 2018 8:08 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শুধু বিদেশ থেকে অস্ত্র আমদানি করলেই হবে না। ভারতেই তৈরি করতে হবে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্র। সেই অস্ত্রে বলিয়ান হয়েই আসন্ন যুদ্ধে এগোতে হবে ভারতকে। সোমবার কার্যত ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র হয়ে সওয়াল করে এমনটাই বললেন সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত। স্পষ্ট জানালেন, আধুনিক যুদ্ধ ক্রমশই নিজের চরিত্র পরিবর্তন করছে। সেই পরিবর্তিত চরিত্রের সঙ্গে মানিয়ে নিতে প্রতিদিনই নিত্যনতুন চ্যালেঞ্জ নিতে হবে সেনাকে।

[ভারতের সশস্ত্র সেনার জন্য এবার অত্যাধুনিক গাড়ি]

এদিন আর্মি টেকনোলজি সেমিনারে যোগ দিতে এসে জেনারেল রাওয়াত বলেন, ‘প্রযুক্তি প্রতিদিনই পালটাচ্ছে। ভবিষ্যতে যে কোনও যুদ্ধে এই প্রযুক্তি একটা বড় ভূমিকা নেবে।’ ভারতীয় সেনাতেও এই মুহূর্তে আধুনিকীরণের প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করেন তিনি। এবং সেটা সব ক্ষেত্রে। পদাতিক, নৌসেনা ও বায়ুসেনা- তিনটি বাহিনীকেই ভবিষ্যতে আরও আধুনিক করে তুলতে হবে বলে মতপ্রকাশ করেন জেনারেল রাওয়াত। তাঁর আশঙ্কা, আন্তর্জাতিক পরিস্থিতি যে দিকে যাচ্ছে, দ্রুতই ভারতকে যুদ্ধে জড়াতে হতে পারে। মুখে বলছেন, ‘ভবিষ্যত আমাদের সামনে কড়া চ্যালেঞ্জ নিয়ে আসতে চলেছে। আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে যে কোনও পরিস্থিতির জন্য।’

 

আর এই প্রসঙ্গেই তাঁর মত, ধীরে ধীরে অস্ত্র ও সামরিক প্রযুক্তি আমদানি করা কমিয়ে আনতে হবে। ভারতকে পরবর্তী যুদ্ধে লড়তে হবে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রেই। তিনি অবশ্য আশাবাদী, যে পথে দেশের সশস্ত্র বাহিনী এগোচ্ছে, সেটা সঠিক। হালকা অথচ অত্যাধ্ন্নিক অস্ত্রশস্ত্রের দিকে ঝুঁকেছে সেনা, এই প্রবণতার প্রশংসা করেন তিনি। সেনার জন্য তৈরি হচ্ছে প্রচুর সামরিক গাড়ি, কেনা হচ্ছে কাঁধে করে বয়ে নিতে যাওয়ার মতো কামান। দেশের উত্তর ও পশ্চিম সীমান্তে চিন ও পাকিস্তানকে টক্কর দিতে উঁচু পাহাড়ি এলাকায় সহজে চলাচল করতে পারবে এমন গাড়ি আনাচ্ছে সেনা। চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে ৭ লক্ষ রাইফেল, ৪৪ হাজার লাইট মেশিন গান ও ৪৪,৬০০ কারবাইন কেনার পরিকল্পনাও। আমেরিকার বিরুদ্ধে হেঁটে পাকিস্তান যখন চিনের আরও কাছাকাছি যেতে ভারতের বিরুদ্ধে সুর চড়াচ্ছে, সেই পরিস্থিতিতে সেনাপ্রধানের এই মন্তব্য নতুন জল্পনা উসকে দিয়েছে। তবে কি এবার পাকিস্তান ও চিনের বিরুদ্ধে পূর্ণাঙ্গ যুদ্ধে নামার প্রস্তুতি শুরু করে দিচ্ছে ভারত।

প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞদের এই ভাবনা উসকে দিচ্ছে সেনার আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। চিন ও পাকিস্তান- দুই সীমান্তেই প্রায় ১৪ হাজার বাঙ্কার তৈরি করতে উদ্যোগী হয়েছে দেশের সশস্ত্র বাহিনী। নিয়ন্ত্রণরেখায় পুঞ্চ ও রজৌরিতে ৭২৯৮টি ও আন্তর্জাতিক সীমান্তে ৭১৬২টি আন্ডারগ্রাউন্ড বাঙ্কার নির্মাণের ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্র। এই প্রকল্পের জন্য খরচ হবে ৪১৫ কোটি টাকারও বেশি। ১৬০ বর্গফুটের এক একটি বাঙ্কারে ৮ জন ও ৮০০ বর্গফুটের বাঙ্কারে একসঙ্গে ৪০ জন পর্যন্ত থাকতে পারবেন নিরাপদে। পাকিস্তানের সঙ্গে মোট ৩৩২৩ কিলোমিটার বিস্তৃত সীমান্ত রয়েছে ভারতের। যার মধ্যে ২২১ কিলোমিটার পড়ে আন্তর্জাতিক সীমান্ত। গত এক বছরে এই সংবেদনশীল এলাকায় অন্তত ৩৫ জন ভারতীয় প্রাণ হারিয়েছেন পাক সেনার গুলিতে। তাই এবার গোটা সীমান্তকেই নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলতে অভিনব পদক্ষেপ করল সেনা।

[চিন-পাকিস্তান সীমান্তে অত্যাধুনিক ‘বুলেটপ্রুফ’ বাঙ্কার বানাচ্ছে ভারতীয় সেনা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement