BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ব্রেক্সিট-এর ধাক্কা সামলাতে দেশের প্রয়োজন মনমোহন সিংকে!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 25, 2016 12:05 pm|    Updated: June 25, 2016 12:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী হিসবে তাঁর কৃতিত্ব অনেকটাই যেন তখনকার শাসকদলের সিদ্ধান্তের ছায়ায় ঢাকা৷ কিন্তু অর্থনীতিবিদ হিসেবে তাঁর পদক্ষেপ যুগান্তকারী৷ দেশকে মুক্ত অর্থনীতির পথ দেখিয়েছিলেন তিনিই৷ ব্রেক্সিটের ধাক্কায় দুনিয়া জুড়ে অর্থনীতি যখন বেসামাল, তখন দেশের অর্থনীতির হাল ঠিক রাখতে তাঁকে ফেরানোর দাবি জোরদার হচ্ছে৷

ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন থেকে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত সারা দুনিয়ার অর্থনীতিতে বিরাট প্রভাব ফেলেছে৷ একই প্রভাব পড়েছে ভারতেও৷ এরই মধ্যে এনএসজি-তে এবারও প্রবেশ করতে পারেনি ভারত৷ ফলে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে যে প্রতিপত্তি বৃদ্ধি ও অর্থনৈতিক দিক থেকে যে সমৃদ্ধির আশা ছিল তা এ মহূর্তে পূরণ হচ্ছে না৷ ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার ফলে হুহু করে পড়ছে টাকার দাম৷ শেয়ার মার্কেটেও বড়সড় পতন অবশ্যম্ভাবী৷ এই পরিস্থিতিতে মনমোহন সিংহের মতো তুখোড় অর্থনীতিবিদের অভিজ্ঞতা ও প্রজ্ঞাই হয়ত দেশের অর্থনীতির বেসামাল তরীকে আবার স্রোতে ফেরাতে সক্ষম হবে৷ আর তাই তাঁর মেধা কাজে লাগানোর দাবি তুলল জনতা দল ইউনাইটেড৷ জেডিইউ নেতা অজয় অলোক এই দাবি জানিয়ে বলেন,  “ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়ার ফলে ভারত এবার সরাসরি ব্রিটেনের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করতে পারবে, প্রতিরক্ষা ব্যবস্থায় দুই রাষ্ট্রের বোঝাপোড়া জোরদার হবে৷ কিন্তু অর্থনীতিতে বিরাট ধাক্কা পড়ল৷ প্রায় ৮০০ দেশীয় কোম্পানি এর ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হবে৷ আমার আশা, এই সময় অর্থমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রকের উপদেষ্টারা অনেক সতর্ক থাকবেন৷ দেশের এই সংকটে মনমোহন সিংয়ের মতো অর্থনীতিবিদকে আবার দরকার হয়ে পড়েছে৷”

যদিও সদ্য প্রাক্তন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের গভর্নর রঘুরাম রাজন দাবি করেছেন, এখনই বড়সড় আশঙ্কার কিছু নেই৷ তাঁর মতে অর্থনীতিতে শক্ত ভিতের উপরই দাঁড়িয়ে আছে ভারত৷ বৈদেশিক ঋণের পরিমাণ কমা ও কোষাগারের পর্যাপ্ত বৈদেশিক মুদ্রা থাকা স্বস্তি দিচ্ছে তাঁকে৷ তবে যে হারে শেয়ার বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে, তাতে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিশেষজ্ঞরা৷ একদা বিশ্ববাজারে আর্থিক মন্দার বিরুদ্ধে মনমোহনী নীতির জেরেই ভারতের অর্থনৈতিক শিরদাঁড়া ঝুঁকে পড়েনি৷ দুই দফার ইউপিএ সরকার নিয়ে যত সমালোচনাই থাক, তার সুফল যে দেশবাসী ও পরবর্তী বিজেপি সরকার ভোগ করছে সে কথা বলাই বাহুল্য৷ রাজনৈতিক বাধ্যবাধকতাতেই কিছু কাজ তিনি করে উঠতে পারেননি৷ তবে অর্থনীতির হাল ফেরাতে মনমোহন সিংয়ের মেধার যে বিকল্প নেই তা অনস্বীকার্য৷ আর তাই এমত পরিস্থিতিতে তিনি যদি উপদেশ দেন তাহলে ভারত হয়ত আশু সংকট থেকে মুক্তি পাবে৷ কিন্তু রাজনীতির উর্দ্ধে উঠে এদেশে তা আদৌ সম্ভব হবে কি না, তা অবশ্য লক্ষ টাকার প্রশ্ন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement