BREAKING NEWS

৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ২৩ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

জঙ্গিযোগে ধৃত বাংলার ছাত্রীকে জেরায় মিলল সূত্র, কর্ণাটক থেকে NIA’র জালে যুবক

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 11, 2020 2:34 pm|    Updated: November 11, 2020 2:34 pm

An Images

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ: জঙ্গিযোগে বাদুড়িয়া থেকে ধৃত কলেজ ছাত্রীর থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কর্ণাটক থেকে এক লস্কর জঙ্গিকে (Lashkar-e-Taiba) গ্রেপ্তার করল NIA। ধৃতের নাম সৈয়দ ইদ্রিশ নবি ওরফে মুন্না। তদন্তের স্বার্থে ধৃতকে নিয়ে আসা হবে কলকাতায়।

ধৃত সৈয়দ ইদ্রিশ নবি ওরফে মুন্না থাকত বেঙ্গালুরু থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে। পড়াশোনায়ও বেশ ভালই ছিল সে। জানা গিয়েছে, কোনওভাবে সে জঙ্গিগোষ্ঠীর সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে। পরবর্তীতে দক্ষিণ ভারত মডিউলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হয়ে ওঠে। মূলত নতুন সদস্য নিয়োগ ও তহবিলের দায়িত্ব ছিল ধৃত সৈয়দ ইদ্রিশ নবির হাতে। তার সঙ্গে যোগ ছিল আইএসআইয়ের। আর কার কার সঙ্গে যোগ রয়েছে তার? কীভাবে কাজ চালাতো সে? কীভাবে হয়ে উঠল জঙ্গিগোষ্ঠীর গুরুত্বপূর্ণ সদস্য? তা জানার চেষ্টা করছে তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: ১০৬ দিন পর দেশে অ্যাক্টিভ কেস নামল পাঁচ লক্ষের নিচে, মোট করোনাজয়ী ৮০ লক্ষ]

উল্লেখ্য, চলতি বছরের মার্চ মাসে উত্তর ২৪ পরগনার বাদুড়িয়া থেকে জঙ্গি কার্যকলাপে জড়িত সন্দেহে ধরা পড়ে স্নাতকের ছাত্রী তানিয়া পারভিন। তাকে প্রথমে গ্রেপ্তার করে রাজ্য পুলিশের স্পেশ্যাল টাস্ক ফোর্স (STF)। এর সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে মামলাটির তদন্তভার নেয় NIA। তানিয়াকে জেরা করে উঠে আসে বহু গোপন তথ্য। কলেজছাত্রী নিজে পাকিস্তানের নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবা দ্বারা উদ্বুদ্ধ হয়ে তাদের হয়ে কাজ করতে শুরু করে। সোশ্যাল মিডিয়ায় গ্রুপ তৈরি করে তার মতো বহু যুবক, যুবতীকে জেহাদের আদর্শে অনুপ্রাণিত করত। সূত্রের খবর, এই তানিয়াকে জেরা করেই প্রথম মুন্নার হদিশ মেলে। এরপর সুযোগ বুঝে ফাঁদ পাতে NIA।

[আরও পড়ুন: নীতীশের এক ফোনেই রাতারাতি বদলে গিয়েছে ভোটের ফল! সাংঘাতিক অভিযোগ আরজেডির]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement