BREAKING NEWS

৮ বৈশাখ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২২ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘আম্বানির সঙ্গে কোনও লড়াই নেই, ওঁর বাড়ির সামনে বিস্ফোরক রাখিনি’, দাবি জইশ-উল-হিন্দের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 1, 2021 9:18 am|    Updated: March 1, 2021 11:16 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রিলায়েন্স কর্তা ও এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তি মুকেশ আম্বানির (Mukesh Ambani) বাড়ির সামনে বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি রাখা ও হুমকি চিঠি পাঠানোর দায় নিয়েছিল জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-উল-হিন্দ (Jaish Ul Hind)। কিন্তু সেই ঘটনার ২৪ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই মুম্বই পুলিশের তরফে জানানো হল, এর সঙ্গে ওই জঙ্গি সংগঠনের কোনও সম্পর্ক নেই। দায় স্বীকারের খবর সম্পূর্ণ মিথ্যা।

মুম্বই পুলিশ জানায়, সংবাদমাধ্যমে যে চিঠির কথা ছড়িয়ে পড়েছে, তা ভুয়ো। এই ঘটনার সঙ্গে জইশ-উল-হিন্দের কোনও সম্পর্ক নেই। জানা গিয়েছে, এমন খবর চাউর হওয়ার পর নতুন একটি ব্যানার প্রকাশ্যে এনেছে জঙ্গি সংগঠনটি। সেখানেই তারা স্পষ্ট করেছে, আম্বানির সঙ্গে তাদের কোনও বিরোধ নেই। এই সংগঠন আম্বানি পরিবারকে হুমকি দেয়নি। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী ব্যানারে লেখা, “সকালে আমরা খেয়াল করি প্রতিটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত হচ্ছিল যে মুকেশ আম্বানির বাড়ির সামনে বিস্ফোরক বোঝাই গাড়ি রাখার দায় জইশ-উল-হিন্দ নিয়েছে। আমরা ভারতীয় গোয়েন্দা এজেন্সিগুলোকে এর জন্য ধিক্কার জানাই। ওরাই আমাদের নাম বিকৃত করে ভুয়ো পোস্টার তৈরি করেছে। এই ঘটনার সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পর্ক নেই। ‘কাফের’দের থেকে আমরা কখনওই কিছু চাই না। তাই আম্বানির সঙ্গে কোনও বিরোধিতা নেই। আমাদের লড়াই BJP ও RSS-এর বিরুদ্ধে।”

[আরও পড়ুন: কোভ্যাক্সিনেই ভরসা, কোভিড টিকা নিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি]

উল্লেখ্য, গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মুকেশ আম্বানির বাড়ি অ্যান্টিলিয়ার বাইরে ২০টি জিলেটিন স্টিক-সহ একটি গাড়ি উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকেই কারমাইকেল রোডের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়। আসা ও যাওয়ার প্রত্যেকটি গাড়ি তল্লাশি করে তারপর ছাড়া হয়। মুকেশের বাড়ির বাইরে বিস্ফোরক বোঝাই স্করপিও গাড়িটি রেখে এক ব্যক্তিকে একটি সাদা ইনোভা গাড়িতে চেপে চলে যেতে দেখা গিয়েছিল। ওই সাদা ইনোভাটির সন্ধান এখনও পায়নি পুলিশ। থানের টোল প্লাজায় শেষবার ইনোভাটিকে দেখা গিয়েছিল। তারপর সেটি উধাও হয়ে যায়। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা নিয়ে ঘনিয়ে উঠেছে নয়া রহস্য। দ্রুত এই রহস্যের সমাধান করতে মরিয়া মুম্বই পুলিশ (Mumbai Police)। এখনও পর্যন্ত অন্তত ১৫ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। খতিয়ে দেখা হয়েছে শ’খানেক সিসিটিভি ফুটেজও।

[আরও পড়ুন: ‘তৃণমূলের সরকার গড়ার’ মন্তব্য নিছকই ‘স্লিপ অফ টাং’, সাফাই বিজেপি নেতা সুনীল মণ্ডলের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement