১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পাক শিল্পীদের নিষিদ্ধ করেনি কেন্দ্র: নায়ডু

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 26, 2016 5:49 pm|    Updated: September 12, 2020 3:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতে পাক শিল্পীদের নিষিদ্ধ করা সংক্রান্ত বিতর্কে মুখ খুললেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এম বেঙ্কাইয়া নায়ডু৷ স্পষ্ট করে দিলেন, কেন্দ্র কোনওরকম নিষেধাজ্ঞা চাপায়নি৷ তবে, পরিচালকদের ভারতীয়দের ভাবাবেগ সম্পর্কে সচেতন থাকারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷

পাশাপাশি, দেবেন্দ্র ফড়নবিসের পাশে দাঁড়িয়ে নায়ডু এদিন সাফাই দেন, ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এর প্রযোজকদের মোটেও ৫ কোটি টাকা সেনা তহবিলে দিতে জোর করেননি মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী৷ সংবাদসংস্থা পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে ছায়াযুদ্ধ চললেও পাক শিল্পীদের নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পক্ষে নন তিনি৷ তবে এই কঠিন পরিস্থিতিতে পরিচালকদেরও ভারতীয় নাগরিকদের ভাবাবেগকে সম্মান জানাতে হবে বলে মনে করেন তিনি৷ বেঙ্কাইয়া নায়ডু মনে করেন, দেবেন্দ্র ফড়নবিস একেবারে সঠিক কাজ করেছেন৷ রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তিনি দক্ষ হাতে সামলাচ্ছেন৷ ছবির মুক্তি বিলম্বিত হতে দেননি তিনি৷ মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ফড়নবিসের ইস্তফা চাওয়ায় কংগ্রেসের সমালোচনা করেছেন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী৷

অন্যদিকে, ভারতীয় ছবির উপর থেকে পাকিস্তান সরকার নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার কথা ভাবছে বলে সূত্রের খবর৷ বলিউডি সিনেমা মুক্তি না পেলে যে লোকসান আখেরে তাদেরই— সেটা বিলক্ষণ জানেন পাক ডিস্ট্রিবিউটর এবং হল মালিকেরা। তাই ফওয়াদ খানকে নিয়েই যে ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ মুক্তি পাচ্ছে, এই খবর পাওয়ার পরেই নাকি নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়ার ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা করা শুরু করেছেন তারা। জানা গেছে, এমএনএস’এর পাঁচ কোটি টাকা অনুদানের প্রস্তাব যে ভারতীয় সেনা ফিরিয়ে দিয়েছে, সে খবরও খুশি করেছে তাদের। ‘পাকিস্তানি এগজিবিটর অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউটর্স অ্যাসোসিয়েশনে’র প্রধান জোরেজ লাশারি বলেছেন, ‘আমাদের প্রাথমিক দাবি ছিল, পাকিস্তানি অভিনেতাদের ভারতে কাজ করতে দিতে হবে। এখন দেখতে পাচ্ছি বিষয়টা ধীরে ধীরে ইতিবাচক দিকে এগোচ্ছে। ‘ইম্পা’র নিষেধাজ্ঞার পর প্রতিবাদ জানাতে এখানকার ডিস্ট্রিবিউটররা ভারতীয় ছবি দেখানো বন্ধ করে দেয়। ওটা সেই অর্থে ব্যান ছিল না। এমএনএসের বিরুদ্ধে ভারতীয় সেনার প্রতিক্রিয়া আর ফওয়াদ খানের ছবি-মুক্তি পাওয়া সদর্থক বার্তাই দিচ্ছে।’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement