BREAKING NEWS

২৬ বৈশাখ  ১৪২৯  সোমবার ১৬ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ডেবিট কার্ডের তথ্য ফাঁসে আতঙ্কের কারণ নেই: অর্থমন্ত্রক

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 21, 2016 10:07 am|    Updated: January 27, 2020 4:40 pm

No need to panic, debit cards are safe: Finance Ministry

সংবাদ প্রতিদিন ব্যুরো: ‌৩২ লক্ষ ডেবিট কার্ড বাতিল নিয়ে ব্যাঙ্কগুলির কাছে তথ্য চাইল কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক৷ কেন একসঙ্গে এতগুলি কার্ড বাতিল করার প্রয়োজন হল সে বিষয়ে এখনও মন্ত্রক অন্ধকারে৷ যদিও এদিনই অর্থমন্ত্রকের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, তথ্য ফাঁস হলেও আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই৷ ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ও সমস্ত তথ্য সুরক্ষিতই থাকবে৷ বেশ কিছুদিন ধরেই গ্রাহকদের কাছে মোবাইলে মেসেজ আসছিল অবিলম্বে এটিএম কার্ডের ‘পিন’ বদলানোর জন্য৷ কারণ হিসাবে বলা হয়েছিল, কার্ডের নিরাপত্তা সংক্রান্ত ঝুঁকি রয়েছে৷ যাঁরা তা পাল্টে ফেলেছেন বা পাল্টাননি এমন অনেকের কাছেই গত কয়েকদিনে ফের মেসেজ৷ নিরাপত্তার কারণেই বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে তাঁদের কার্ডের সমস্ত লেনদেন৷ একই সঙ্গে আশ্বাস বার্তা, শীঘ্রই তাঁদের ডুপ্লিকেট এটিএম কার্ড তাঁদের ঠিকানায় পৌঁছে যাবে৷

ব্যাঙ্কগুলির তরফে জানানো হয়েছে নিরাপত্তার কারণে সারা দেশে এমন প্রায় ৩২ লক্ষ ডেবিট কার্ড বাতিল করা হয়েছে৷ কিছুদিন ধরেই বেশ কিছু কার্ডের নিরাপত্তা সংক্রান্ত ঝুঁকি দেখা দেওয়ায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ৷ বিভিন্ন ব্যাঙ্কের কার্ড বাতিলের ঘটনা ঘটেছে৷ এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি বাতিল হয়েছে স্টেট ব্যাঙ্কের ডেবিট কার্ড৷ স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার ছয় লক্ষ কার্ড ব্লক করা হয়েছে বলে ব্যাঙ্কের তরফে জানানো হয়েছে৷ এছাড়াও রয়েছে এইচডিএফসি, আইসিআইসিআই, অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক ও ইয়েস ব্যাঙ্ক৷ স্টেট ব্যাঙ্কের তরফেও খবরটি স্বীকার করা হয়েছে৷ খবর প্রকাশিত হতেই নড়েচড়ে বসেছে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকও৷ ডেবিট কার্ডের নিরাপত্তা কীভাবে লঙ্ঘিত হতে পারে সেই বিষয়ে ব্যাঙ্কগুলির কাছ থেকে অর্থমন্ত্রক তথ্য চেয়ে পাঠিয়েছে৷ অর্থমন্ত্রক সূত্রে খবর, মন্ত্রকের তরফে ইন্ডিয়ান ব্যাঙ্কস অ্যাসোসিয়েশনের কাছে তথ্য চেয়ে পাঠানো হয়েছে৷ রাষ্ট্রায়ত্ত ও বেসরকারি ব্যাঙ্কগুলির তরফে অর্থমন্ত্রককে জানানো হয়েছে, সমস্ত তথ্য এবং ‘পিন’ (পার্সোনাল আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার) সুরক্ষিত করতে তাদের তরফে সবরকম ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে৷ বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক এসবিআইয়ের তরফে অবশ্য আশ্বাস দেওয়া হয়েছে কোনও গ্রাহকের কোনও তথ্যই অসুরক্ষিত নেই, হবেও না৷ যদিও সূত্রের খবর, ইয়েস ব্যাঙ্কের সার্ভারে ম্যালওয়ারের কারণেই এই তথ্য ফাঁসের ঘটনা ঘটেছে৷ তবে এ বিষয়ে নিশ্চিত তথ্য পাওয়া যায়নি৷ মুখ খোলেনি ইয়েস ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষও৷

কলকাতায় এসবিআইয়ের কলকাতা সার্কেলের সিজিএম পার্থপ্রতিম সেনগুপ্ত জানান, সারা দেশে অন্তত ৩২ লক্ষ কার্ড ব্লক করা হয়েছে৷ তার মধ্যে তাঁদের ব্যাঙ্কের ব্লক করা কার্ডের সংখ্যা প্রায় ছয় লক্ষ৷ তবে কীভাবে কোথা থেকে গোপন নথি ফাঁস হয়েছে সে বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি পার্থপ্রতিমবাবু৷ যদিও নিশ্চিতভাবেই তিনি জানিয়েছেন যে স্টেট ব্যাঙ্কের কোনও এটিএম থেকে তথ্য ফাঁসের ঘটনা ঘটেনি৷ একই সঙ্গে নিরাপত্তাজনিত কারণে এবং নিজেদের সুবিধার্থে গ্রাহকদের শুধমাত্র স্টেট ব্যাঙ্ক এটিএমই ব্যবহারের জন্যও বলেছেন পার্থপ্রতিমবাবু৷ যে সমস্ত গ্রাহকের কার্ড ব্লক করা হয়েছে আগামী সাত থেকে দশ দিনের মধ্যে তাঁদের ঠিকানায় নতুন কার্ড পৌঁছে যাবে বলেও জানিয়েছেন সিজিএম৷ গ্রাহকদের ফের একবার সতর্ক করেছেন কার্ড সংক্রান্ত গোপন নথি কোনওভাবেই কারও কাছে প্রকাশ না করার জন্যও৷

‘প্লাস্টিক মানি’ লেনদেনের ক্ষেত্রে অর্থপ্রদান পদ্ধতি সংক্রান্ত সংস্থাগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করে ন্যাশনাল পেমেন্ট কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া বা এনপিসিআই৷ এনপিসিআই, পেমেন্ট গেটওয়ে মাস্টারকার্ড এবং ভিসার তরফ থেকেও বিভিন্ন ব্যাঙ্ককে সতর্ক করা হয়েছে কার্ডের লেনদেনের সুরক্ষা বিষয়ে৷ এসবিআইয়ের তরফে জানানো হয়েছে মে থেকে জুলাই মাসের মধ্যেই তথ্য ফাঁসের ঘটনা ঘটেছে৷ তবে তা ধরা পড়েছে সেপ্টেম্বরে৷ পিন বদল করার জন্য বলা হয় কার্ডের গ্রাহকদের৷ কিন্তু সারা দেশে মাত্র সাত শতাংশ গ্রাহক এই নির্দেশের পর তাঁদের কার্ডের পিন বদল করেন৷ এর পর থেকেই কার্ড ব্লক ও বদল করার বিষয়ে সমস্ত রকম উদ্যোগ নিয়েছে তাদের ব্যাঙ্ক৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে