১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

গরিবদের সাহায্য করার সময় সেলফি তুললেই শাস্তি! পথ দেখাচ্ছে রাজস্থানের এই জেলা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 9, 2020 4:19 pm|    Updated: April 9, 2020 4:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সেলফি তোলার সময় বজায় থাকছে না সামাজিক দূরত্ব। তাই গরিব মানুষকে সাহায্য করার পর তাঁর সঙ্গে ছবি তোলার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করল রাজস্থানের কোটার (Kota) জেলা প্রশাসন। কোটার জেলাশাসক বলছেন, “সেলফি তলার মোহে অনেকেই ভুলে যাচ্ছেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা। তাই বাধ্য হয়ে সেলফিতে নিষেধাজ্ঞা জারি করছে জেলা প্রশাসন।”

kota help

কেউ কোনও গরিব মানুষের মুখে খাবার তুলে দিচ্ছেন, কেউ বা দরিদ্রের হাতে চাল-ডালের মতো খাদ্যবস্তু তুলে দিচ্ছেন, আবার কোথাও হয়তো কোনও ভিক্ষুকের কাছে সামান্য ফল পৌঁছে দিয়েছে একদল যুবক। সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই দেখতে পাবেন এমন হাজারো ছবি। ছবিগুলি দেখলে মনে হবে কাউকে সাহায্য করাটা গৌণ। ছবি তোলাটাই যেন আসল উদ্দেশ্য। এর ফলে যাকে দান করছেন সেই সহায়-সম্বলহীন মানুষটাকে যে সামাজিক সমস্যায় পড়তে হতে পারে, সে কথা আমাদের মাথাতেও আসে না। তাছাড়া, বিশ্বজুড়ে মহামারির আবহে ছবি তোলার সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়টিও মেনে চলা হয় না। এর ফলে একদিকে যেমন সামাজিক অবক্ষয় হচ্ছে, অন্যদিকে তেমনি করোনা ছড়ানোর ঝুঁকিও থাকছে। ‘কাউকে দান করেছি, এই দেখনদারিটাই তো প্রাপ্য। সেটা কেন ছাড়ব?’ তথাকথিত দানবীরদের এই মানসিকতার জন্যই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার বড়সড় ঝুঁকি থাকছে।

[আরও পড়ুন: কেরলে আটক ঠিকাকর্মীদের খাবার পাঠাচ্ছেন স্মৃতি ইরানি! দাবি ওড়ালেন বিজয়ন]

করোনা-মোকাবিলায় বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার প্রতি আসক্তি। এই ঝুঁকি থেকে বাঁচতে এই নজিরবিহীন সিদ্ধান্ত কোটা প্রশাসনের। সাহায্যকারীদের উদ্দেশে তাঁদের বার্তা, নিঃসন্দেহে আপনারা সাহায্য করে মানুষের উপকার করছেন। সেটা করুন। কিন্তু, কোনওভাবেই খাবার বিতরণের সময় সেলফি তোলা যাবে না। এবং সর্বদা নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করতে হবে। কোটাতে এখনও পর্যন্ত ১০ জন করোনার রোগী পাওয়া গিয়েছে। এই এলাকায় সংক্রমণ রুখতে সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে প্রশাসনের বার্তা, ‘দান করুন, দেখনদারি নয়’।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement