BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কমেডিয়ান মুনোয়ার ফারুকির বিরুদ্ধে হিন্দু ধর্মের অবমাননার প্রমাণই নেই, দাবি পুলিশের

Published by: Paramita Paul |    Posted: January 4, 2021 4:29 pm|    Updated: January 4, 2021 4:29 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কমেডিয়ান মুনোয়ার ফারুকির (Munawar Faruqui) বিরুদ্ধে ধোপে টিকল না বিজেপি বিধায়কের ছেলের অভিযোগ। জমা করা ভিডিওতে রসিকতার ছলে হিন্দু দেবদেবীকে অপমানের কোনও প্রমাণই মেলেনি কমেডিয়ানের বিরুদ্ধে। সোমবার এমনটাই জানালেন ইন্দোরের তুকাজিগঙ্গ পুলিশ স্টেশনের আধিকারিকরা।

সর্বভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমে তুকাজিগঙ্গ পুলিশ স্টেশনের এসআইচও কমলেশ শর্মা জানান, “অভিযোগকারীরা যে ভিডিও জমা করেছেন, তা খতিয়ে দেখা হয়েছে। তাতে মুনোয়ারের বিরুদ্ধে হিন্দু দেবদেবীদের অপমানের কোনও প্রমাণ মেলেনি।” মুনাওয়ারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন বিজেপি বিধায়ক মালিনী গৌরের ছেলে একলব্য সিং গৌর। বলেছেন, একের পর এক অনুষ্ঠানে কমেডিয়ান মুনোয়ার ফারুকি হিন্দু দেবদেবী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে অপমান করে।

[আরও পড়ুন : কোভ্যাক্সিন নিয়ে সমস্যা হলে মিলবে ক্ষতিপূরণ, বিরোধীদের জবাব এইমস ডিরেক্টরের]

অভিযোগের স্বপক্ষে দুটি ভিডিও রেকর্ডিং পুলিশকে দিয়েছিল তারা। তাতে হিন্দু ধর্মের বিরুদ্ধে অশ্লীল বা অপমানজনক কোনও মন্তব্য করতে দেখা যায়নি বলে দাবি পুলিশের। আরও একটি পেন ড্রাইভ জমা দিয়েছে অভিযোগকারীরা। তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কমলেশ শর্মা জানিয়েছেন, “আমি আপনাদের নিশ্চিন্ত করতে পারি যে দুটি ভিডিও ফুটেজে অবমাননাকর কিছুই মেলেনি।”

জানা গিয়েছে, ইন্দোরের এক জনপ্রিয় কফিশপে স্ট্যান্ডআপ কমেডি শোয়ের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানে দর্শকাসনে উপস্থিত ছিলেন হিন্দ রক্ষক সংগঠনের সদস্যরাও। তাঁদের অভিযোগ, অনুষ্ঠানের শুরু থেকেই রসিকতার নামে হিন্দু দেবদেবী, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও গোধরা কাণ্ড নিয়ে একের পর এক বিতর্কিত মন্তব্য করছিলেন মুনোয়ার ফারুকি। সেই মন্তব্যের বিরোধিতা করে সঙ্গে সঙ্গে অনুষ্ঠান বন্ধের আরজি জানান হিন্দ রক্ষক সংগঠনের সদস্যরা। কিন্তু তাতে কান দেয়নি কফিশপ কর্তৃপক্ষ। পুরো অনুষ্ঠানের রেকর্ডিং নিয়ে পরে পুলিশের দ্বারস্থ হন তাঁরা।

[আরও পড়ুন : শ্মশানের ছাদ ভাঙার ঘটনায় বাড়ছে মৃতের সংখ্যা, গাফিলতির অভিযোগে গ্রেপ্তার ৩]

এদিকে, কফিশপের ওই অনুষ্ঠানে কোভিডবিধি মানা হচ্ছিল না বলে অভিযোগ করেছেন একলব্যের বিধায়ক বাবা। তাঁর কথায়, অনুষ্ঠান আয়োজনের আগে কোনও অনুমতি নেওয়া হয়নি। ছোট্ট কফিশপে প্রায় ১০০ জন উপস্থিত ছিল, যা কোভিডবিধিকে লঙ্ঘন করেছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে ১৩ জানুয়ারি অবধি মুনোয়ারের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement