BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

উত্তরাখণ্ডে মেঘভাঙা বৃষ্টিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে সাত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 30, 2016 2:33 pm|    Updated: May 30, 2016 2:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের মেঘভাঙা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত উত্তরাখণ্ড৷
মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে অন্তত সাত৷ খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না অনেককেই৷ তীব্র জলের স্রোতে ঘরছাড়া বহু মানুষ৷ কেদারনাথ যাওয়ার রাস্তা বন্ধ৷
মেঘভাঙা বৃষ্টিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে উত্তরকাশী এবং তেহরি জেলা৷ প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ছ’জনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে৷ শনিবার তেহরি জেলার ঘানসালী এলাকায় মেঘভাঙা বৃষ্টিতে মৃত্যু হয়েছে ১৫ বছরের এক কিশোরের৷ আর এদিন যে মৃতদেহগুলি পাওয়া গিয়েছে, তার মধ্যে তিনজন মহিলা রয়েছেন৷ আর তিনজনই উত্তর কাশীর চিন্যায়ালিসৌর এলাকার৷ বহু গাছ উপড়ে গিয়েছে৷ রাস্তায় গাছ পড়ে যাওয়ার জেরে যান চলাচল ব্যবস্থাও ভেঙে পড়েছে৷ আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী কয়েকদিনও বেশ ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে৷ চারধাম যাত্রায় যাতে কোনওরকম বিঘ্ন না ঘটে, সেজন্য দ্রূত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফে৷ দ্রূত রাস্তা সাফাইয়ের নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন৷ বেশ কয়েকটি গৃহপালিত পশুও মারা গিয়েছে৷ উদ্ধারকারী দল জরুরিকালীন ভিত্তিতে উদ্ধারের কাজ চালাচ্ছে৷ বছর দু’য়েক আগে মেঘভাঙা বৃষ্টির স্মৃতি এখনও টাটকা উত্তরাখণ্ডে৷ ফের আবার সেই স্মৃতি যাতে ফিরে না আসে, সেজন্য এবার প্রশাসন বেশ সজাগ রয়েছে বলে জানানো হয়েছে৷
এদিন প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে, বিশেষ করে তেহরি ও উত্তরকাশী জেলার বহু মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ দুর্গতদের দেওয়া হয়েছে শুকনো খাবার৷ তৈরি করা হয়েছে অস্থায়ী আশ্রয়স্থল৷ তেহরির প্রায় ৪০টি বাড়ি সম্পূর্ণ ভেঙে গিয়েছে৷ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি বাড়ি৷ উপড়ে গিয়েছে বিদ্যুৎস্তম্ভ৷ ফলে এখানকার বিদ্যুত্‍ পরিষেবা বিপর্যস্ত৷ তেহরির জেলাশাসক জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই প্রায় ২০টির মতো বাড়ি ভেঙে গিয়েছে৷ ক্ষতিগ্রস্ত অন্তত ১০টির মতো বাড়ি৷ দুর্গতদের স্থানীয় স্কুলে অস্থায়ীভাবে থাকার বন্দোবস্ত করা হয়েছে৷ ইতিমধ্যেই এসডিএম বিজয়নাথ শুক্ল এদিন সকালে দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে যান৷ তীব্র জলের স্রোতে বেশ কয়েকজন ভেসে গিয়েছেন৷ অবিলম্বে জোর তল্লাশি অভিযান চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement