BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিহারের কিষাণগঞ্জ সীমান্তে গুলি চালাল নেপালের পুলিশ, জখম ভারতীয় যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: July 19, 2020 8:54 pm|    Updated: July 19, 2020 9:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কয়েকদিন আগে বিহারের সীতামারিতে নেপালের পুলিশের ছোঁড়া গুলিতে মৃত্যু হয়েছিল দুই ভারতীয়। এবার ফের কিষাণগঞ্জ সীমান্তে গুলি ছুঁড়ল তারা। এর জেরে বিহারের এক যুবক গুরুতর জখম হয়েছেন। জিতেন্দ্র সিং নামে ২৫ বছরের ওই যুবককে বর্তমানে পূর্ণিয়ার একটি হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের কিষাণগঞ্জ ( Kishanganj) জেলার তেধাগাছা ব্লকের ফতেপুর এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ফতেপুরের বাসিন্দা জিতেন্দ্র তাঁর দুই বন্ধু অঙ্কিত কুমার সিং ও গুলশান কুমার সিংয়ের সঙ্গে শনিবার সন্ধ্য্যা সাড়ে সাতটা নাগাদ গ্রামের বাইরে নিজেদের গরু খুঁজছিলেন। তাঁরা যখন হারিয়ে যাওয়া গরুর সন্ধানে সীমান্ত এলাকার মাফি টোলায় ঘুরছিলেন তখন নেপালের পুলিশ আচমকা গুলি চালাতে শুরু করে। এর ফলে গুরুতর জখম হন জিতেন্দ্র। সঙ্গে সঙ্গে বন্ধুরা এলাকার বাসিন্দাদের সাহায্যে তাঁকে ফতেপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যান। কিন্তু, অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে তাঁকে পূর্ণিয়ার একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই ফতেপুর এলাকায় প্রবল উত্তেজনা তৈরি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ও সীমান্ত সুরক্ষা বল (SSB) -এর ১২ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের সদস্যরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। যদিও এখনও পর্যন্ত সেখানকার পরিস্থিতি থমথমে রয়েছে।

[আরও পড়ুন: ভরদুপুরে ২২ লক্ষ টাকা লুট করে বোমা মেরে ATM উড়িয়ে দিল দুষ্কৃতীরা, ছড়াল চাঞ্চল্য]

এপ্রসঙ্গে কিষাণগঞ্জের পুলিশ সুপার কুমার আশিস বলেন, এই ঘটনাটি ভারতীয় ভূখণ্ডের মধ্যে ঘটেনি। ওই যুবকটি গরু খুঁজতে গিয়ে আরও দুই বন্ধুর সঙ্গে নেপাল সীমান্তে ঢুকে পড়েছিল বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। সেসময় আচমকা তাঁদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় নেপালের পুলিশ। এর জেরে জিতেন্দ্র নামে ওই যুবক জখম হন। ঘটনাটির তদন্ত এখনও চলছে। তা শেষ হলেই এই বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো সম্ভব হবে।

[আরও পড়ুন: ‘গরুচোর’ সন্দেহে গণপিটুনিতে অসমে মৃত তিন বাংলাদেশি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement