BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

যৌনতার ফাঁদে ফেলে ভারতীয় নাগরিককে ব্ল্যাকমেল! গোপন তথ্য হাতানোর চেষ্টা ISI-এর

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 24, 2020 10:23 am|    Updated: August 24, 2020 10:23 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোশ্যাল মিডিয়ায় সুন্দরী মহিলাদের  ফাঁদ! একাকীত্বের সুযোগ নিয়ে চ্যাটবক্সে যৌনতার সুড়সুড়ি! এবং শেষে বুঝিয়ে সুঝিয়ে পতিতালয়ে নিয়ে যাওয়া। যৌনতায় মগ্ন অবস্থায় তাঁর ছবি তোলা। উত্তরপ্রদেশের গোরক্ষপুরবাসী এক ভারতীয় নাগরিককে ঠিক এভাবেই ফাঁসিয়েছিল পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই। তারপর সেই ছবি ব্যবহার করে তাঁকে লাগাতার ব্ল্যাকমেল। গোরক্ষপুরের বিভিন্ন জায়গা সম্পর্কে তথ্য জোগাড় করা এবং সেনা-ছাউনি, রেল স্টেশন, বিমান ঘাঁটির ছবি তলানো সবটাই করানোর চেষ্টা করেছিল আইএসআই (ISL)। কিন্তু শেষপর্যন্ত ভারতীয় সেনার তৎপরতায় পাক গুপ্তচর সংস্থার সেই ছক বানচাল হল।

সূত্রের খবর, সম্প্রতি পাকিস্তানের করাচিতে গোরক্ষপুরের এক ব্যক্তিকে হানি ট্র্যাপে ফাঁসায় দুই পাকিস্তানি এজেন্ট। করাচির এক পতিতালয়ে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। সেখানে যৌনতায় মত্ত অবস্থায় ছবি তোলা হয়। তারপর দেশে ফিরে আসতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ছবি দেখিয়ে ব্ল্যাকমেল করা হয় ওই ব্যক্তিকে। ওই ব্যক্তিকে নির্দেশ দেওয়া হয়, ভারতীয় সেনা (Indian Army) সম্পর্কে গোপন তথ্য খুঁজে বের করতে। গোরক্ষপুর স্টেশন, ভারতীয় বায়ুসেনার ঘাঁটি, সেনা ছাউনির ছবি তুলে পাঠাতে নির্দেশ দেওয়া হয়। এমনকী, যেভাবেই সেনা বাহিনীর হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে ঢোকার নির্দেশ দেওয়া হয়। সেনা সুত্রে খবর, ওই ব্যক্তির কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অযোধ্যায় ভূমিপূজনের দিন গোরক্ষপুরে হামলার ছক কষছিল পাক জঙ্গিরা। কিন্তু এসবের মধ্যেই পাকিস্তানের ফোন নম্বর থেকে ওই ব্যক্তির সঙ্গে যোগাযোগের খবর পায় ভারতীয় সেনার গোয়েন্দা বিভাগের জম্মু কাশ্মীর ইউনিট। তাঁরা দ্রুত সে খবর জানায় লখনউ ইউনিটকে। সেনার গুপ্তচরদের তরফে যোগাযোগ করা হয় উত্তরপ্রদেশের দুর্নীতিদমন শাখার সঙ্গে। সেনা এবং উত্তরপ্রদেশ এটিএসের (UP ATS) যৌথ অভিযানে পাক গুপ্তচর সংস্থার ছক বানচাল হয়। জানা যায় সামান্য ওই চা বিক্রেতাকে ফাঁসিয়েছে পাকিস্তানের গুপ্তচররা। পাকিস্তানে নিজের আত্মীয়বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছল মহম্মদ হানিফ। আর তারপরই তাঁর জীবনে নেমে আসে অভিশাপ। নিজের অনিচ্ছা সত্ত্বেও একের পর এক দেশবিরোধী কাজ করতে হয়েছে তাঁকে।

[আরও পড়ুন: ছুটি মেলেনি স্বামীর, তাঁকে কাছে না পেয়ে একাকীত্বের যন্ত্রণায় আত্মঘাতী CRPF জওয়ানের স্ত্রী]

প্রসঙ্গত, সারা বিশ্বেই এখন তথ্য হাতানোর জন্য ‘হানিট্র্যাপ’ একটি পরিচিত কৌশল। এরআগে বহুবার এই কৌশলে ভারতীয় আধিকারিকদের কাছ থেকে তথ্য জানার চেষ্টা চালিয়েছে পাকিস্তান। এবং প্রায় প্রতিবারই
ব্যর্থ হয়েছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই। কিন্তু তাতেও ক্ষান্ত হচ্ছে না পাকিস্তান।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement