২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের দ্রুততম ট্রেন বন্দে ভারত এক্সপ্রেস। আসল নাম ট্রেন-১৮। সর্বোচ্চ ২০০ কিলোমিটার গতিতে চলবে এই ট্রেন। অধিকারিকদের মতে, প্রথমে ১০০ কিলোমিটার গতিতে চলা শুরু করবে। তারপর গতির সীমা বাড়বে ধীরে ধীরে। কমবেশি ১৫০-১৮০ কিলোমিটার গতিতে চলবে এই ট্রেনটি। মোদি সরকারের মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের অধীনেই ট্রেন-১৮ তৈরি হয়েছে। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের দাবি, এই ট্রেনটি ভারতের গর্ব। কিন্তু এই টুইট করতে গিয়েই বিপাকে পড়েছেন রেলমন্ত্রী।

[রাফালে চুক্তির আগেই বদলানো হয় দুর্নীতি বিরোধী আইন, বিস্ফোরক রিপোর্ট ‘দ্য হিন্দু’র]

১০ ফেব্রুয়ারি রেলমন্ত্রী তাঁর নিজস্ব টুইটার হ্যান্ডলে ট্রেন ১৮-এর একটি ভিডিও পোস্ট করেন। ক্যাপশানে লেখা ছিল, এটা একটা পাখি… একটা বিমান… দেখুন ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’র উদ্যোগে নির্মিত ভারতের প্রথম সেমি-হাইস্পিড ট্রেন, বন্দে ভারত এক্সপ্রেস বিদ্যুৎ গতিতে ছুটে চলেছে।’’ শুধু টাইটারে নয়, নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক অ্যাকাউন্টেও এই ভিডিওটি পোস্ট করেন পীযূষ গোয়েল। অভিযোগ, পীযূষ গোয়েল ট্রেন-১৮ এর গতি সংক্রান্ত যে ভিডিওটি নিজের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করেছেন তা আসল নয়। ট্রেন-১৮ এর আসল গতির দ্বিগুণ দেখানো হয়েছে ওই ভিডিওটিতে। 

[তৃতীয় দিনের জেরা শেষ, মঙ্গলবার ফের তলব রাজীব কুমারকে]

কিন্তু তাঁর ভিডিও পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে তা ভাইরাল হয়ে যায়। একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম দাবি করে এটি আসল ভিডিও নয়। ট্রেন-১৮ এর ট্রায়াল রানের ‘আসল’ ভিডিওটিও পোস্ট করে ওই সংবাদমাধ্যম। দেখা যায়, পীযূষ গোয়েল যে ভিডিওটি পোস্ট করেছেন, তাতে ট্রেনটির গতি আসল ভিডিওটির তুলনায় দ্বিগুণ। এরপরই নেটদুনিয়ায় প্রবল কটাক্ষের শিকার হন রেলমন্ত্রী। আসরে নামে কংগ্রেসও। ‘আসল’ এবং ‘নকল’ ভিডিও দুটিকে পোস্ট করে তাদের কটাক্ষ। ট্রেন-১৮ এর থেকেও জোরে ছোটে একটাই জিনিস, সেটা হল দুর্নীতিবাজদের মিথ্যা।

 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং