×

৪ ফাল্গুন  ১৪২৫  রবিবার ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাফালে ইস্যুতে রাহুল গান্ধী যেন নাছোড়বান্দা। প্রায় প্রতিদিনই সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি দাবি করছেন, যুদ্ধবিমান কেনাবেচার চুক্তিতে বড়সড় দুর্নীতি হয়েছে। প্রমাণ করার চেষ্টা করছেন চৌকিদারই চোর। এবার তাঁর হাতিয়ার একটি ইমেল। বিমান সংস্থা এয়ারবাসের এক কর্মীর করা ইমেলের অংশ তুলে ধরে এদিন কংগ্রেস সভাপতি দাবি করলেন, রাফালে চুক্তি হওয়ার দশদিন আগেই জানতেন অনিল আম্বানি। যে চুক্তি সম্পর্কে প্রতিরক্ষামন্ত্রী তথা প্রতিরক্ষা সচিব পর্যন্ত জানতেন না, সেই চুক্তি সম্পর্কে অনিল আম্বানি কি করে জানলেন? প্রশ্ন কংগ্রেস সভাপতির। তাঁর অভিযোগ, নরেন্দ্র মোদি আম্বানির দালাল হিসেবে কাজ করছেন।

[‘এক কোণে গিয়ে সারাদিন বসে থাকুন’, নাগেশ্বর রাওকে শাস্তি সুপ্রিম কোর্টের]

কংগ্রেস সভাপতির দাবি, আম্বানিকে চুক্তি সম্পর্কে আগে থেকে জানিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় নিরাপত্তার সঙ্গে সমঝোতা করেছেন। মোদি যেটা করেছেন সেটা গুপ্তচরেরা করে থাকেন। কিন্তু কীসের ভিত্তিতে এই অভিযোগ করছেন রাহুল? এদিন সাংবাদিক বৈঠকে একটি ইমেলের প্রিন্ট আউট তুলে ধরেন তিনি। ইমেলটি ২০১৫ সালের ১৮ মার্চের। ইমেলে এয়ারবাসের ওই আধিকারিক লিখেছেন,খবর পেলাম ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর সঙ্গে গোপন সাক্ষাৎ করেছেন অনিল আম্বানি। ফ্রান্সের সঙ্গে বাণিজ্যিক এবং প্রতিরক্ষা বিমান নির্মাণে সংক্রান্ত শিল্পে কাজ করতে ইচ্ছুক তিনি। খুব শীঘ্র ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ফ্রান্স সফরে আসবেন। তখন দুই দেশের মধ্যে সেই সংক্রান্ত একটি মউ স্বাক্ষরিত হবে বলে আম্বানি বিদেশমন্ত্রীকে জানিয়েছেন। তার প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছে।

[প্রধানমন্ত্রীর সভায় মহিলা সহকর্মীর সঙ্গে ‘অশালীন’ আচরণ ত্রিপুরার মন্ত্রীর]

রাহুলের অভিযোগ, প্রধানমন্ত্রীর সফরের ঠিক দশদিন আগে গোপনে ফ্রান্সে যান অনিল আম্বানি। দেখা করেন সেদেশর সেসময়ের বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে। তাঁকে জানিয়ে আসেন, ভারত ও ফ্রান্সের মধ্যে রাফালে চুক্তি হয়ে গেলে, তিনি ফ্রান্সের সঙ্গে প্রতিরক্ষাক্ষেত্রে কাজ করবেন। অর্থাৎ, সরকারি আমলাদের আগে আম্বানি চুক্তির খবর জানতেন। প্রধানমন্ত্রী তাঁকে খবর দিয়েছিলেন। যা দালালির শামিল। যদিও, এ বিষয়ে বিজেপি পালটা আক্রমণ শানিয়েছে রাহুলকে। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদের পালটা প্রশ্ন, রাহুলের হাতে এয়ারবাসের ওই ইমেল কী করে এল? তবে কী কংগ্রেস সভাপতি দাসাল্টের প্রতিপক্ষ সংস্থার হয়ে লবি করছেন? রাহুলের পালটা দিয়েছে, অনিল আম্বানির সংস্থাও। তাদের দাবি, ইচ্ছে করে তথ্যগুলি ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বলা হচ্ছে। 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং