Advertisement
Advertisement

Breaking News

PM Modi

কুয়েতের অগ্নিকাণ্ডে মৃতদের পরিবারের পাশে প্রধানমন্ত্রী মোদি, ঘোষণা আর্থিক সাহায্যের

গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে ভারত। এই ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৯। যাঁদের মধ্যে অধিকাংশই ভারতীয়। আহতের ৫০-এর উপর।

PM Modi Announces Compensation For Families Of Indians Killed In Kuwait Fire
Published by: Suchinta Pal Chowdhury
  • Posted:June 13, 2024 8:51 am
  • Updated:June 13, 2024 6:05 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কুয়েতের অগ্নিকাণ্ডে মৃতদের পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Modi)। মৃতদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকার আর্থিক সাহায্য ঘোষণা করেছেন তিনি। গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে ভারত। এই ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৯। যাঁদের মধ্যে অধিকাংশই ভারতীয়। আহত ৫০-এর উপর। ফলে হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে মোদির নির্দেশে বৃহস্পতিবার কুয়েতের জন্য রওনা দিয়েছেন বিদেশ প্রতিমন্ত্রী কীর্তি বর্ধন সিং। আহতদের সঙ্গে দেখা করার পাশাপাশি দুর্ঘটনাস্থলও ঘুরে দেখবেন তিনি। 

বুধবার স্থানীয় সময় ভোর ছটা নাগাদ দক্ষিণ কুয়েতের মানগাফ শহরে একটি ছয়তলা আবাসনে আগুন লাগে। বিভিন্ন দেশ থেকে সেদেশে কাজ করতে যাওয়া নির্মাণ শ্রমিকরা ওই আবাসনে থাকতেন। একসঙ্গে প্রায় ১৯৫ জন ছিলেন সেখানে। তাঁদের মধ্য়ে তামিলনাড়ু ও কেরলের বহু শ্রমিকও ছিলেন। শেষ পাওয়া খবর মোতাবেক, এই অগ্নিকাণ্ডে এখনও পর্যন্ত ৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ৪০ জনের বেশি ভারতীয়। তাঁদের বেশিরভাগই কালো ধোঁয়ায় দম আটকে প্রাণ হারিয়েছেন। এই ঘটনায় আহতের সংখ্যা ৫০-এর উপর। ফলে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলেই আশঙ্কা। কুয়েতের বিভিন্ন হাসপাতালে জখমদের চিকিৎসা চলছে।

Advertisement

এই ঘটনায় গতকাল, বুধবার শোকপ্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক্স হ্যান্ডেলে লেখেন, ‘কুয়েতের মানগাফ শহরের অগ্নিকাণ্ডে আমরা শোকাহত। এই ঘটনায় যাঁরা নিজেদের প্রিয়জনদের হারিয়েছেন তাঁদের প্রতি আমাদের সমবেদনা রয়েছে। আমরা আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। কুয়েতের ভারতীয় দূতাবাস গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে। বিপর্যস্তদের সহায়তার জন্য প্রশাসনের সঙ্গে কাজ করা হচ্ছে।’

Advertisement

এর পরই উচ্চপর্যায়ের বৈঠক ডাকেন মোদি। গোটা পরিস্থিতি নিয়ে ৭ লোক কল্যাণ মার্গের বাসভবনে তিনি আলোচনা করেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল, বিদেশ সচিব বিনয় মোহন কোয়াত্রা-সহ অন্যান্য আধিকারিকদের সঙ্গে। তার পর কেন্দ্রের তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে কুয়েতে মৃত ভারতীয়দের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য করা হবে। এদিকে, জয়শংকর যোগাযোগ করেছেন কুয়েতের বিদেশমন্ত্রী আবদুল্লাহ আলি আল ইয়াহিয়ার সঙ্গে। মৃত ভারতীয়দের দেহ দ্রুত দেশে পাঠানোর আর্জি জানিয়েছেন জয়শংকর। তাঁকে সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন ইয়াহিয়া।

ইতিমধ্যেই কুয়েতের ভারতীয় দূতাবাসের তরফে বিবৃতি জারি করে জানানো হয়েছে, ‘এই দুর্ঘটনায় ভারতীয় শ্রমিকদের জন্য হেল্পলাইন নম্বর চালু করা হয়েছে। ৯৬৫-৬৫৫০৫২৪৬। যে কোনও সহায়তার জন্য এই নম্বরে যোগাযোগ করুন।’ পাশাপাশি এই ঘটনার তদন্তও শুরু করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে মুখ খুলেছেন কুয়েতের উপপ্রধানমন্ত্রী শেখ ফাহাদ আল ইউসুফ আল সাবাহ। তিনি জানান, ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডটি ঘটেছে আবাসন মালিকের অত্যন্ত লোভের কারণে। অভিযোগের আঙুল উঠেছে মালয়লি ব্যবসায়ী কেজি আব্রাহামের দিকে। তাঁর অধীনস্থ সংস্থা এনবিটিসি গ্রুপের তরফেও ওই আবাসনটি ভাড়া নেওয়া হয়েছিল। সেখানে খুব কম জায়গার মধ্যে রাখা হত ভারত থেকে কাজ করতে আসা শ্রমিকদের। ইতিমধ্যেই ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করার নির্দেশ দিয়েছেন কুয়েতের উপ প্রধানমন্ত্রী।  

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ