১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনার মারে বেকায়দায় অর্থনীতি, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে ‘স্পেশ্যাল ৫০’

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 17, 2020 9:28 am|    Updated: July 17, 2020 9:28 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মহামারীর জেরে দেশের অর্থনীতিতে কী প্রভাব পড়েছে, তা খতিয়ে দেখতে বৃহস্পতিবার বৈঠক করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। এদিন রাতে অর্থ ও বাণিজ্য মন্ত্রকের ৫০ জন শীর্ষ আমলাদের সঙ্গে আলোচনায় পরিস্থিতি সম্পর্কে তথ্য নেন তিনি।

[আরও পড়ুন: করোনা LIVE UPDATE: ভারতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল ১০ লক্ষের গণ্ডি]

সূত্রের দাবি, প্রধানমন্ত্রীর মূল উদ্দেশ্য ছিল কীভাবে ফের অর্থনীতিকে দ্রুত চাঙ্গা করা যায়, তার উপায় বের করা। করোনার জেরে দেশে দীর্ঘ লকডাউনের ফলে বহু কল-কারখানা, বাণিজি্যক প্রতিষ্ঠান বহুদিন বন্ধ ছিল। তার বিরূপ প্রভাব পড়েছে অর্থনীতিতে। চাহিদা ও উৎপাদন কমে যাওয়ায় গত কয়েকটি ত্রৈমাসিকে আর্থিক বৃদ্ধির হার থমকে গিয়েছে। এই অবস্থায় অর্থনীতির চাকা দ্রুত ঘোরাতে না পারলে দেশে আর্থিক মন্দার ভ্রূকুটি দেখা দিতে পারে বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

সূত্রের খবর, এদিন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রায় দেড় ঘণ্টা বৈঠক হয়। সেখানে পরিস্থিতি নিয়ে প্রেজেন্টেশন দেন অর্থ ও বাণিজ্য মন্ত্রকের কর্তারা। প্রায় ৫০জন শীর্ষস্থানীয় আমলা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন। তাঁদের কাছ থেকে বিস্তারিত বিবরণ নেন প্রধানমন্ত্রী। তার আগে বৃহস্পতিবার তিনি আর্থিক উপদেষ্টা পরিষদ, অর্থমন্ত্রক এবং নীতি আয়োগের চিফ ইকোনমিক অ্যাডভাইসর ও প্রিন্সিপাল ইকোনমিক অ্যাডভাইসরদের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করেন বলে জানা গিয়েছে। করোনা সংক্রমণের জেরে আর্থিক মন্দা ঠেকাতে গত মে মাসে কেন্দ্র বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছিল। বাণিজ্য ও অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে ২০.৯৭ লক্ষ কোটি টাকার প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়। প্রয়োজন হলে পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে আরও সহায়তা করা হবে বলে জানিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ভারতে মোট করোনা (Corona) আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লক্ষ ছাড়িয়ে গিয়েছে। সংবাদসংস্থা PTI-এর পরিসংখ্যান অনুসারে, দেশে মোট সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০ লক্ষ ২০২ জন। মারণ ভাইরাসে মৃতের সংখ্যাও ২৫ হাজারের গণ্ডি টপকে গিয়েছে। আনলক-২ পর্বে রীতিমতো লাগাম ছাড়া হয়ে উঠেছে করোনা সংক্রমণ। পরিস্থিতি সামাল দিতে বহু রাজ্যই ফের আংশিক লকডাউনের পথে হাঁটছে। এহেন পরিস্থিতিতে অর্থনীতির হাল ঠিক রাখতে লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্র সরকার।

[আরও পড়ুন: দক্ষিণ চিন সাগর কারও একার সম্পত্তি নয়, বেজিংকে চাপে রেখে বার্তা ভারতের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement