BREAKING NEWS

১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘দেড় লাখি’ চশমা পরেও দেখতে পেলেন না সূর্যগ্রহণ, টুইটারে আক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: December 26, 2019 1:42 pm|    Updated: December 26, 2019 2:44 pm

PM Modi regrets for not seeing solar eclipse even with specs worth 1.5lakh

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় তিনঘণ্টা ধরে আকাশে সূর্য আর চাঁদের লুকোচুরি খেলা হয়েছে। কখনও চাঁদ সূর্যের প্রায় গোটা শরীর ঢেকে দিয়েছে, কখনও বা অর্ধেক, কখনও আকাশে একফালি সূর্যদেব দৃশ্যমান হয়েছেন। আর বছরশেষের এই মহাজাগতিক ঘটনার সাক্ষী থেকেছেন বিশ্ববাসী। তবে এবারের বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ প্রত্যক্ষ করা থেকে ভারত কিছুটা বঞ্চিতই থেকেছে। দক্ষিণ ভারতের কয়েকটি স্থান ছাড়া সেভাবে আকাশে চাঁদ-সূর্যের খেলা দেখতে পাননি আমজনতা। আর সেই বঞ্চিতের দলে পড়লেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীও। এক লক্ষ ৬০ হাজার টাকা দামের বিশেষ চশমা পরে, আকাশে চোখ রেখেও সরাসরি সূর্যগ্রহণ দেখতে পেলেন না তিনি। টুইটারে তা নিয়ে আক্ষেপও ঝরে পড়ল।

আকাশ আংশিক মেঘলা থাকবে, বৃষ্টির সম্ভাবনাও আছে। আবহাওয়া দপ্তরের এই পূর্বাভাসের পরই বোঝা গিয়েছিল, সূর্যগ্রহণের দৃশ্য খুব একটা ভালভাবে দেখা যাবে না। কলকাতার আকাশে সেই দৃশ্য প্রায় চোখে পড়েনি বললেই চলে। তবু আশা তো কমে না। সেই আশাতেই দিল্লিতে বসে আকাশের দিকে চোখ রেখেছিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। চোখে দামি ব্র্যান্ডেড চশমা। কিন্তু তাঁরও দৃষ্টি ঢেকে দিল ঘন মেঘ আর কুয়াশা। তাই চাঁদ-সূর্যের লুকোচুরি খেলা স্বচক্ষে দেখতে পেলেন না তিনি। তবে দেখলেন, লাইভ স্ট্রিমিংয়ে। কেরলের কোঝিকোড় থেকে ক্যামেরার চোখ দিয়ে সূর্যগ্রহণের কিছুটা দেখেই দুধের স্বাদ ঘোলে মেটাতে হল।

[আরও পড়ুন: প্রবল শৈত্যপ্রবাহে জবুথবু উত্তর ভারত, মাঝ পৌষেই বৃষ্টির পূর্বাভাস দক্ষিণবঙ্গে]

পরে আক্ষেপ করে প্রধানমন্ত্রী টুইট করলেন, ”সমস্ত ভারতবাসীর মতো আমিও সূর্যগ্রহণ দেখতে ভীষণ উৎসাহী ছিলাম। দুর্ভাগ্যবশত আমি সূর্যগ্রহণ সরাসরি দেখতে পেলাম না, মেঘে ঢাকা ছিল আকাশ। তবে এর কিছুটা অংশ আমি কোঝিকোড় থেকে লাইভ স্ট্রিমিংয়ের মাধ্যমে দেখেছি। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা করে আমার সীমিত জ্ঞানও একটু বাড়ল।”

[আরও পড়ুন: ‘CAA নিয়ে মানুষকে ভুল বোঝানো হচ্ছে’, আন্দোলন নিয়ে প্রতিক্রিয়া দেশের সেনাপ্রধানের]

এদিন প্রায় ঘণ্টা তিনেক ধরে সূর্যগ্রহণের সময় বিরলতম রিং অফ ফায়ারও দেখা গিয়েছে দক্ষিণ ভারতের কোনও কোনও অংশ থেকে। তবে দুবাই থেকে এটি ৪ মিনিট ধরে সবচেয়ে ভালভাবে দেখা গিয়েছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন। এছাড়া মালয়শিয়া, সিঙ্গাপুর, শ্রীলঙ্কা, সৌদি আরবের বাসিন্দারাও আকাশে বিরলতম দৃশ্য ‘হীরের আংটি’ প্রত্যক্ষ করার সুযোগ পেয়েছেন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে