২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ভূমিপুজো উপলক্ষে কড়া নিরাপত্তা অযোধ্যায়, আমন্ত্রিত ১৭৫ জন, মোদি থাকবেন ঘণ্টা তিনেক

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 4, 2020 12:40 pm|    Updated: August 4, 2020 12:40 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাম মন্দিরের (Ram Mandir) ভূমিপুজোর চূড়ান্ত প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে অযোধ্যায়। একদিকে যেমন ধার্মিক রীতিনীতি পালন চলছে, অন্যদিকে তেমনই চলছে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করার কাজ। এখনও পর্যন্ত যা খবর আগামিকাল ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে মোট ১৮৫ জনকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে রামজন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাষ্ট। এদের মধ্যে ১৩৫ জনই সাধু-সন্ত এবং ধর্মগুরু। বাকি ৫০ জন মতো রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এবং পদাধিকারী।

 

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর সূত্রের খবর, বুধবার সকাল থেকে উত্তরপ্রদেশে মোট ঘণ্টা তিনেকের পরিকল্পনা আছে। সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ দিল্লি থেকে একটি চাটার্ড বিমানে লখনউয়ের উদ্দেশ্যে উড়ে যাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। সেখান থেকে চপারে তিনি যাবেন অযোধ্যা। মোটামুটি সাড়ে ১১টা নাগাদ অযোধ্যা পৌঁছানোর কথা মোদির। তারপর অযোধ্যার হনুমানগ্রাহী মন্দিরে প্রার্থনা এবং পুজো দেবেন তিনি। ১২টা নাগাদ রাম জন্মভূমিতে পৌঁছানোর কথা মোদির। ১২টা ৪০ নাগাদ প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই রাম মন্দিরের শিলান্যাস হবে। ৪০ কেজি রুপোর শিলা স্থাপন করে মন্দির নির্মাণের সূচনা করবেন তিনি। সেসময় প্রধানমন্ত্রীর আশেপাশে থাকার কথা মাত্র ৪ জনের। ঘণ্টা দেড়েক ধরে ভূমিপুজোর অনুষ্ঠান চলার কথা। পুজো শেষ করে ২টোর পরপর দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন মোদি। গতকাল থেকেই ভূমিপুজোর রীতিনীতি চালু হয়ে গিয়েছে। আজও ১২ জন পুরোহিত রাম-সীতা এবং গণেশের আরাধনা করেছেন।

[আরও পড়ুন: রাম মন্দিরের ভূমিপুজোর দিনক্ষণ ঠিক করা জ্যোতিষীকে খুনের হুমকি! বাড়ানো হল নিরাপত্তা]

ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে যাতে সামাজিক দূরত্ব লঙ্ঘন না হয়, তা নিশ্চিত করতে সবরকম পদক্ষেপ করছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। প্রায় গোটা শহরটাই ছেয়ে ফেলা হয়েছে ব্যারিকেডে। সোমবার গভীর রাত পর্যন্ত আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath)। অযোধ্যাবাসীর উদ্দেশে তিনি আবেদন জানিয়েছেন,”আমন্ত্রিত সাধু-সন্তরা ছাড়া যাতে আর কেউ, রামজন্মভুমিতে উপস্থিত না হোন।” এমনিতেই দিন দিন উত্তরপ্রদেশের করোনা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে, এই পরিস্থিতিতে কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চাইছেন না যোগী।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement