১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ২৯ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

নীরব মোদি কাণ্ডের পর ফের আর্থিক প্রতারণার শিকার PNB, এবার ২ হাজার কোটি টাকার ধাক্কা

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: March 17, 2022 11:52 am|    Updated: March 17, 2022 11:55 am

PNB Hit by Another Scam, Fraud by Tamil Nadu Company | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নীরব মোদির (Nirab Modi) বিপুল প্রতারণার কাহিনি সাধারণ মানুষের মনে এখনও টাটকা। উলটোদিকে ব‌্যাংকের লোকসানের বোঝাও এখনও ভারী। দেশে ফেরানো যায়নি প্রতারক নীরব মোদিকে। এরই মধ্যে আরও একটি আর্থিক তছরূপের শিকার হল পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংক (Punjab National Bank)। রিজার্ভ ব্যাংককে (RBI) পিএনবি জানিয়েছে, একটি সংস্থার নেওয়া ঋণের দৌলতে আবার ২ হাজার কোটি টাকা প্রতারণার শিকার হয়েছে তারা।

এবার রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকটির তরফ থেকে ঋণ নিয়েছে তামিলনাড়ুর (Tamil Nadu) একটি সংস্থা। নাম আইএল অ্যান্ড এফএস তামিলনাড়ু পাওয়ার। পিএনবি-র নয়াদিল্লি শাখার কর্পোরেট বিভাগ থেকে তামিলনাড়ুর এই সংস্থাটি বড় অঙ্কের অর্থ ঋণ হিসেবে নিয়েছিল। তামিলনাড়ুর ওই সংস্থাটির প্রধানত বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী সংস্থা। যার সদর দফতর তামিলনাড়ুর কুড্ডালোরে। পিএনবির তরফে আরবিআইকে জানানো হয়েছে, ফের ২ হাজার ৬০ কোটি ১৪ লক্ষ টাকার প্রতারণার শিকার হয়েছে তারা।

[আরও পড়ুন: ‘বিজেপির বিকল্প গড়তে সমমনস্ক দলগুলির সঙ্গে আলোচনা করুক কংগ্রেস’, মমতার সুর G-23 নেতাদের গলায়]

কয়েক বছর আগে ভারতীয় হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদিকে বিপুল অর্থ ঋণ দিয়েছিল পিএনবি। পরে জানা যায় নীরব ভুয়ো জামিনদার ব্যবহার করে ওই ঋণ নিয়েছিলেন। ২০১৮ সালে প্রতারণার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। তত দিনে ঋণের অঙ্ক বেড়ে হয়েছে প্রায় ১৪ হাজার কোটি। যতক্ষণে বিষটি প্রকাশ্যে আসে, ততক্ষণে ফেরার হয়েছেন হিরে ব‌্যবসায়ী নীরব মোদি ও তাঁর মামা মেহুল চোকসি (Mehul Choksi)। এই ঘটনার চার বছরের মধ্যেই আবার প্রতারণার শিকার হল প্রথাম সারির রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকটি।

গত ফেব্রুয়ারি মাসে পাঞ্জাব অ্যান্ড সিন্ধ ব্যাংকও তামিলনাড়ুর সংস্থাটিকে ‘ব্যাড অ্যাসেট’ বলে ঘোষণা করেছিল, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে পিএনবি-ও। আইএল অ্যান্ড এফএসের ১৪৮ কোটি টাকার অনুৎপাদক সম্পদের অ্যাকাউন্টকে জাল অ্যাকাউন্ট বলেও ঘোষণা করেছিল পিএসবি।

[আরও পড়ুন: হিন্দুরা না লড়াই করলে কাশ্মীরের মতো হবে বাংলা, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর মন্তব্যে বিতর্ক]

প্রসঙ্গত, ভারতের ইতিহাসের অন্যতম কুখ্যাত তিন ‘জালিয়াত’ নীরব মোদি, মেহুল চোকসি এবং বিজয় মালিয়ার (Vijay Mallya) সম্পত্তি বিক্রি করে ইতিমধ্যে ১৮ হাজার কোটি টাকা উদ্ধার করেছে সরকার। ক’দিন আগেই সুপ্রিম কোর্টে এই দাবি করে কেন্দ্র। সেই সময় কেন্দ্র আরও দাবি করে, এই বিপুল পরিমাণ টাকা জালিয়াতদের কাছ থেকে উদ্ধার করে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাংকগুকে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে