২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১৭ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Presidential Elections 2022: রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে কলকাতা আসছেন দ্রৌপদী মুর্মু, মমতার সমর্থন পাওয়াই লক্ষ্য?

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 3, 2022 6:15 pm|    Updated: July 3, 2022 6:28 pm

Presidential Elections 2022: NDA candidate Draupadi Murmu to visit Kolkata ahead to election, might ask for Mamata Banerjee support | Sangbad Pratidin

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত, নয়াদিল্লি: সপ্তাহ দুই পেরলেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন (President Elections)। আগামী ১৮ জুলাই দেশের পরবর্তী সাংবিধানিক প্রশাসন নির্বাচিত হবেন। দৌড়ে মূলত দুই প্রার্থী – NDA শিবিরের দ্রৌপদী মুর্মু (Draupadi Murmu)এবং বিরোধীদের প্রার্থী যশবন্ত সিনহা। দু’জনই সমর্থন চাইতে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। সেই সফরেই এবার কলকাতা আসছেন দ্রৌপদী মুর্মু। সূত্রের খবর, আগামী ৯ তারিখ তাঁর কলকাতায় (Kolkata) আসার কথা। যাবেন রাজ্য বিধানসভায়। বিধায়কদের ভোট চাইবেন। একদিনের সফর সেরেই তিনি ফিরে যাবেন বলে এখনও পর্যন্ত খবর। তবে তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে সমর্থন আদায়ের চেষ্টা করবেন কি না, তা নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে।

রাইসিনা হিলসের পরবর্তী বাসিন্দা বেছে নিতে দুই শিবির দুই প্রার্থীকে মনোনীত করেছে। বিজেপি (BJP) নেতৃত্বাধীন এনডিএ শিবিরের প্রার্থী পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি দ্রৌপদী মুর্মু। শিক্ষকতা ছাড়াও একাধিক রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত তিনি। ছিলেন ঝাড়খণ্ডের রাজ্যপালও। আর ১৭ বিরোধী দলের ঐক্যমত্যের ভিত্তিতে মনোনীত অভিজ্ঞ রাজনীতিক, প্রাক্তন মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা (Yashwant Sinha)। প্রসঙ্গত যশবন্ত বিজেপিতেই ছিলেন দীর্ঘদিন। ২০২১ এ দলবদল করে তিনি তৃণমূলে (TMC) যোগ দেন। তবে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী হওয়ার পর তৃণমূলের সমস্ত পদ ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি। তাঁর হয়ে জোরকদমেই প্রচারে নেমেছে তৃণমূল-সহ বিজেপি বিরোধী দলগুলি।

[আরও পডুন: ক্লাব ছাড়তে চান, সরকারিভাবে ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের কাছে আবেদন রোনাল্ডোর]

এদিকে, সম্প্রতি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী নিয়ে বলেছিলেন, ”বিজেপি আগে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থীর নাম জানায়নি আমাদের। দ্রৌপদী মুর্মুর নাম জানলে ভেবে দেখতাম। উনি পিছিয়ে পড়া সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি। তাঁর জয়ের সম্ভাবনা বেশি।” রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, সময়মতো জানলে দ্রৌপদী মুর্মুকে সমর্থন দিতে মমতার হয়ত আপত্তি থাকত না। সেক্ষেত্রে বিরোধীরা আলাদা প্রার্থী না-ও দিতে পারত। যশবন্ত সিনহাকে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী করার নেপথ্যে সবচেয়ে বেশি উদ্যোগ ছিল তৃণমূলেরই। বাকি বিরোধী দলগুলি তৃণমূল নেত্রীর পরামর্শ গ্রহণ করে প্রার্থী নিয়ে সর্বসম্মত হন।

[আরও পডুন: প্রেমিকের আপত্তিতে নাম ভাঁড়িয়ে সন্তানের জন্ম, সদ্যোজাতকে ‘দান’ করতে গিয়ে বিপাকে মহিলা]

এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে দ্রৌপদী মুর্মুর কলকাতা সফর এবং বিধানসভায় যাওয়া। তবে কি মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায়ের সঙ্গে দেখা করে তিনি নিজের সমর্থনে ভোট চাইবেন কি না, তা নিয়েও জোর জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে