১৬ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পুলওয়ামায় হামলা হতে পারে, সতর্কবার্তা সত্ত্বেও শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন মোদি, খোঁচা রাহুলের

Published by: Paramita Paul |    Posted: February 16, 2021 3:06 pm|    Updated: February 16, 2021 3:26 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘পুলওয়ামায় হামলা হতে পারে, আগেভাগেই সতর্ক করেছিলেন গোয়েন্দারা। কিন্তু সময়মতো সেই সতর্কবার্তায় কান দেয়নি প্রশাসন।’ এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ্যে এনেছে এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম। সেই রিপোর্টকে হাতিয়ার করে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ফের সরব হলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামা হামলায় শহীদ হন ৪০ জওয়ান। হামলার ঘটনায় শোকস্তব্ধ হয়ে যায় গোটা দেশ। পাশাপাশি, গোয়েন্দা সংস্থাগুলির ব্যর্থতার জন্যই এই হামলা ঘটেছে বলেও কেউ কেউ অভিযোগ করেছিলেন। সেই জঙ্গি হামলার দু’বছর পর প্রকাশ্যে এল এক চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট। সেখানে বলা হয়েছে, জইশ-ই-মহম্মদ ফিদায়েঁ হামলা চালাতে পারে বলে আগেভাগেই সতর্ক করেছিল গোয়েন্দারা। এমনকী, আইইডি বিস্ফোরণ ঘটানো হতে পারে বলে জানিয়ে ছিলেন তাঁরা। তবু হামলা আটকানো সম্ভব হয়নি।

[আরও পড়ুন :প্যাংগং হ্রদ থেকে ফৌজ সরাচ্ছে চিন, ভিডিও প্রকাশ করে প্রমাণ দিল ভারতীয় সেনা়

সেই রিপোর্টকে হাতিয়ার করে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেছেন রাহুল। মঙ্গলবার টুইটারে রাহুল লেখেন, ২০১৯ সালে ১৪ ফেব্রুয়ারির পুলওয়ামা হামলা নিয়ে আগেভাগেই সতর্ক করেছিল গোয়েন্দা সংস্থাগুলি। কিন্তু তাদের সেই রিপোর্টকে গুরুত্ব দেননি প্রধানমন্ত্রী। তিনি সেই সময় শুটিংয়ে ব্যস্ত ছিলেন। আর আমাদের দেশের জওয়ানদের মৃত্যুমুখে ঠেলে দেন। একইসঙ্গে তিনি প্রশ্ন তোলেন, কেন গোয়েন্দা রিপোর্টকে গুরুত্ব দেওয়া হল না?

[আরও পড়ুন : ‘ড্রাগন’ বধে ভারতের হাতে আসছে অত্যাধুনিক ‘অস্ত্র’, ভয় পাবে পাকিস্তানও়়]

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালবাসার দিনে রক্তে লাল হয়ে গিয়েছিল জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামা। সেনা কনভয়ে জঙ্গি হামলায় শহিদ হন চল্লিশেরও বেশি সিআরপিএফ (CRPF) জওয়ান। সিআরপিএফের কনভয় লক্ষ্য করে অতর্কিতে হামলার ঘটনায় পাক মদতপুষ্ট জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরা জড়িত ছিল। এই ঘটনার পর দু’বছর কেটে গিয়েছে। প্রত্যাঘাতের লক্ষ্যে বালাকোটে এয়ার স্ট্রাইক করে পাক সেনা ঘাঁটি উড়িয়ে দেওয়ার দাবিও করেছে ভারত সরকার। কিন্তু কোথাও একটা আক্ষেপ থেকে গিয়েছে। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement