১০  আশ্বিন  ১৪২৯  শুক্রবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

খেলতে গিয়ে ১৫০ ফুট গভীর কুয়োয় পড়ল দু’বছরের শিশু

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 9, 2019 6:21 pm|    Updated: June 9, 2019 6:21 pm

Punjab: 2-year-old stuck in 150-foot-deep borewell in Sangrur.

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: খেলতে গিয়ে ১৫০ ফুট গভীর কুয়োয় নিচে পড়ে গেল দু’বছরের এক শিশু। এরপর ৭২ ঘণ্টা কেটে গেলেও উদ্ধার করা যায়নি ফতেবীর সিং নামে ওই শিশুটিকে। গত বৃহস্পতিবার বিকেল চারটের সময় দুর্ঘটনাটি ঘটেছে পাঞ্জাবের সাঙ্গরুর জেলায়। রবিবার স্থানীয় প্রশাসন সূত্রে দাবি করা হয়েছে, জোরকদমে উদ্ধার কাজ চলছে। খুব তাড়াতাড়ি শিশুটিকে কুয়োর নিচ থেকে উদ্ধার করা সম্ভব হবে।

[আরও পড়ুন- যোগীকে নিয়ে ‘অপমানজনক’ ভিডিও সম্প্রচার, গ্রেপ্তার টিভি চ্যানেলের সম্পাদক]

বৃহস্পতিবার বিকেল চারটের সময় একমাত্র সন্তান ফতেবীরকে স্থানীয় একটি মাঠে খেলতে নিয়ে গিয়েছিলেন তার মা। সেসময় আচমকা একটি পরিত্যক্ত একটি কুয়োর নিচে পড়ে যায় শিশুটি। তার মা অনেক চেষ্টা করেও রক্ষা করতে পারেনি। কুয়োটির উপরে একটি কাপড় চাপা দেওয়া থাকায় সেটি কারোর নজরে পড়েনি বলেই মনে করা হচ্ছে।

এই দুর্ঘটনার খবর পেয়েই তাকে উদ্ধারের সবরকম চেষ্টা করেন পরিবারের লোকেরা। কিন্তু, সবই ব্যর্থ হন। খবর পেয়ে শুক্রবার সকাল থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করে ন্যাশনাল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এনডিআরএফ)। শিশুটিকে বাঁচিয়ে রাখতে কুয়োটির ১২৫ ফুট গভীর পর্যন্ত অক্সিজেন পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করে তারা।

[আরও পড়ুন- পুলিশের সামনেই মা-ছেলেকে গণপ্রহার ও কুপিয়ে খুন! চাঞ্চল্য তিনসুকিয়ায়]

এপ্রসঙ্গে রবিবার সাঙ্গরুর ডেপুটি কমিশনার ঘনশ্যাম থোরি বলেন, “উদ্ধার কাজের একদম শেষপর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছি আমরা। আজকেই শিশুটিকে উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলে আশা করছি। শুক্রবার শিশুটির কাছ পর্যন্ত অক্সিজেন পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা হলেও কোনও খাবার দেওয়া যায়নি। প্রথমে শিশুটি অচৈতন্য হয়ে পড়লেও শনিবার নিচে পাঠানো ক্যামেরার মাধ্যমে তাকে নড়াচড়া করতে দেখা গিয়েছে। তবে এর আগে কোথাও এত গভীর গর্তে পড়ে থাকা কোনও শিশুকে উদ্ধারের চেষ্টা হয়েছে বলে মনে হয় না। কিছুদিন আগে হরিয়ানার হিসারে যে ঘটনাটি ঘটেছিল তাতে কুয়োর গভীরতা আরও কম ছিল।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে