BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  শুক্রবার ৪ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

হাথরাসে যাওয়ার পথে গ্রেপ্তার সাংবাদিকের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন রাহুল

Published by: Biswadip Dey |    Posted: October 21, 2020 6:11 pm|    Updated: October 21, 2020 6:11 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হাথরাসে (Hathras) যাওয়ার সময় গ্রেপ্তার হওয়া সাংবাদিক সিদ্দিকি কাপ্পানের পরিবারের সঙ্গে বুধবার দেখা করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)। গত ৬ অক্টোবর হাথরাসের নির্যাতিতার বাড়ি যাওয়ার পথে সিদ্দিকি-সহ চারজনকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। অভিযোগ, তাঁদের সঙ্গে পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার (পিএফআই) যোগ রয়েছে। প্রসঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (CAA) নিয়ে প্রতিবাদ ও সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে জড়িত থাকার অভিযোগে আন্দোলন করায় উত্তরপ্রদেশের এই সংগঠনকে নিষিদ্ধ করতে চায় যোগী সরকার।

সূত্রানুসারে, রাহুল গান্ধী ওই পরিবারকে আশ্বাস দিয়েছেন সিদ্দিকির ন্যায়বিচারের জন্য যত দ্রুত সম্ভব তিনি কিছু করার চেষ্টা করবেন। সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে জানা যাচ্ছে, বুধবার সিদ্দিকির স্ত্রী জানিয়েছেন, ‘‘রাহুল গান্ধী আমার স্বামীর ব্যাপারে সমস্ত রকম সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা উদ্বিগ্ন রয়েছি। কারণ আইনজীবীরাও ওঁর সঙ্গে দেখা করতে পারছেন না।’’

[আরও পড়ুন: দাউদ ইব্রাহিম ঘনিষ্ঠ ইকবাল মির্চির ২২ কোটির সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করল ইডি]

গত সোমবার থেকে কেরলের ওয়ানড়ে নিজের লোকসভা কেন্দ্রে রয়েছেন রাহুল। তিনদিনের জন্য ওই সফরে গিয়েছেন তিনি। এদিকে মঙ্গলবার মথুরার আদালত সিদ্দিকিদের বিচার বিভাগীয় হেফাজতে থাকার মেয়াদ বাড়িয়ে দিয়েছে। ২ নভেম্বর পর্যন্ত তাঁদের হেফাজতে থাকতে হবে। আদালত জানিয়েছে, সিদ্দিকি ও অভিযুক্ত বাকি তিনজনের বিষয়ে এখনও পুলিশের তদন্ত শেষ হয়নি। প্রসঙ্গত, ওই চারজনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ ও সন্ত্রাসে যুক্ত থাকার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সিদ্দিকি ছাড়া বাকি তিনজন অভিযুক্তের নাম আতিকুর রহমান, আলম ও মাসুদ।

গত ১৪ সেপ্টেম্বর হাথরাসে এক যুবতী ধর্ষিতা হন। পরে দিল্লির সফদরজং হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয় ২৯ সেপ্টেম্বর। ধর্ষকদের দ্রুত বিচার চেয়ে গর্জে ওঠে গোটা দেশ। গত ৬ অক্টোবর ওই নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে হাথরাসে আসছিলেন সিদ্দিকি। সেই সময়ই তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্রে ভয়াবহ বাস দুর্ঘটনায় ৫ জনের মৃত্যু, আহত আরও অন্তত ৩৪]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement