২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ৯ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  রেলে চাকরি পেতে চাইলে হতে হবে বৈশ্য! অবাক হচ্ছেন তো? আপনি অবাক হলেও এটাই বাস্তব। কারণ, সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে এমনই বিজ্ঞাপন দিয়ে বিপাকে আর কে অ্যাসোসিয়েটস। চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে বর্ণ কীভাবে গুরুত্ব পায়, সেই প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

আর কে অ্যাসোসিয়েটসের মাধ্যমেই মূলত রেলে প্রচুর কর্মী নিয়োগ হয়। সম্প্রতি সংবাদপত্রে একটি বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। বিভিন্ন স্টেশনের ফুড প্লাজায় ম্যানেজার পদে কর্মী নিয়োগ করার কথা উল্লেখ ছিল ওই বিজ্ঞাপনে। বুধবার প্রকাশিত ওই বিজ্ঞাপনে লেখা ছিল, মোট একশোজন পুরুষ প্রার্থী নিয়োগ করা হবে। আবেদনকারীকে উচ্চমাধ্যমিক পাশ হতে হবে বলেই উল্লেখ ছিল বিজ্ঞাপনে। প্রার্থীকে দেশের যে কোনও প্রান্তে কর্মসূত্রে যেতে হতে পারে বলেও উল্লেখ ছিল বিজ্ঞাপনে। এ পর্যন্ত সব ঠিকই ছিল। কিন্তু বিজ্ঞাপনের দ্বিতীয় লাইনের দিকে চোখ পড়তেই অবাক হয়ে যান প্রায় সকলেই। কারণ, তাতে লেখা ছিল ওই পদে চাকরি পাওয়ার জন্য প্রার্থীকে ‘আগরওয়াল বৈশ্য কমিউনিটি’ এবং ভাল পরিবারের সন্তান হতে হবে।

রেলে চাকরির এই বিজ্ঞাপনের খবর ছড়িয়ে পড়তে বিশেষ সময় লাগেনি। সোশ্যাল মিডিয়ার টাইমলাইনের সিংহভাগই দখল করে নেয় বিজ্ঞাপনটি। তাই স্বাভাবিকভাবেই তা নজরে আসে নেটিজেনদের। ‘আগরওয়াল বৈশ্য কমিউনিটি’র প্রার্থী হওয়া বাঞ্ছনীয়, এই শর্ত দেখে চক্ষু ছানাবড়া হয়ে যায় প্রায় সকলের। চাকরির বিজ্ঞাপনে কীভাবে বর্ণ প্রাধান্য পেল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন অনেকেই।

Rail Ad

[আরও পড়ুন: বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলার পাশে কেন্দ্র, মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা প্রধানমন্ত্রীর]

নেটিজেনদের চাপের মুখে যদিও নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে আর কে অ্যাসোসিয়েশন। কর্তৃপক্ষের দাবি, “এইচ আর বিভাগের ভুলের জন্য এমন বর্ণবিভেদমূলক বিজ্ঞাপন সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে। যে এই কাজের জন্য দায়ী তাঁকে বরখাস্ত করা হয়েছে।” ভারতীয় রেলও ওই সংস্থার বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের মতামত, বর্তমান যুগে দাঁড়িয়ে যারা কর্মপ্রার্থীদের বাছাইয়ের ক্ষেত্রে বর্ণকে প্রাধান্য দেয়, তাদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা উচিত রেলের। উত্তপ্ত পরিস্থিতিতে বারবারই নিজেদের অবস্থান বদল করছে আর কে অ্যাসোসিয়েশন। আবারও তাদের তরফে দাবি করা হয়েছে দু’টি বিজ্ঞাপন মিলেমিশে এমন অদ্ভুত কাণ্ড ঘটেছে। অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য ক্ষমাও চেয়ে নেয় কর্তৃপক্ষ। আবার পরিবর্তন করে এই বিজ্ঞপ্তিটি জারি করা হবে বলেও জানিয়েছে আর কে অ্যাসোসিয়েশন। তবে ক্ষমা চাওয়ার পরে আর কে অ্যাসোসিয়েশনকে ক্লিনচিট দিতে নারাজ নেটিজেনরা। বর্ণবিভেদের মানসিকতার নিন্দা করছেন তাঁরা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং