BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

টিকিট কেটে এসি কামরায় যাত্রা চোরের, অভিনব কায়দায় হতবাক পুলিশ

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 27, 2020 9:54 pm|    Updated: July 27, 2020 9:54 pm

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: করোনা আবহে স্বাভাবিক হয়নি যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা। আপাতত যাত্রীদের কথা মাথায় রেখে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে কিছু বিশেষ ট্রেন চালাচ্ছে ভারতীয় রেল। আর এই ট্রেনগুলিকেই নিশানা করেছে দুষ্কৃতীরা। ফলে যাত্রীদের চূড়ান্ত সতর্ক থাকার আবেদন জানিয়েছে রেল। এই সংকটকালে ট্রেনগুলিতে চুরি হচ্ছে অভিনব পদ্ধতিতে। ফলে সতর্ক না থাকলে সর্বস্ব খোয়াতে পারেন যাত্রীরা। আরপিএফের জারি করা সতর্কতায় জানানো হয়েছে, খুব কম ট্রেন চলছে। দুষ্কৃতীরা এই অবস্থায় পেশাগত চরিত্র বদল করেছে। চুরির পদ্ধতি বদলে ফেলেছে তারা।

[আরও পড়ুন: ভবিষ্যতে রাম মন্দির নিয়ে বিতর্ক এড়াতে অভিনব পন্থা, ভিতের নিচে লুকনো থাকবে ইতিহাস]

রবিবার গোরক্ষপুর-বান্দ্রা অবধ এক্সপ্রেসে এক দুষ্কৃতী এসি টু টিয়ারের টিকিট কেটে যাত্রী সেজে চড়ে বসে। রাত হতেই কামরার এ প্রান্ত থেকে সে প্রান্ত চষে বেড়াতে থাকে। কর্তব্যরত টিকিট পরীক্ষক সুশীল বর্মা কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে ঘোরাফেরা করতে নিষেধ করেন তাকে। কিন্তু তাতে কর্ণপাত করেনি অভিযুক্ত। সেকেন্ড এসি কোচে নিয়মমতো টিকিট সংরক্ষণ করে যাত্রা করছিল আবুজার আনসারি নামের ওই ব্যক্তি। কানপুর থেকে সুরাট টিকিট সংরক্ষণ ছিল তার। ফলে টিকিট পরীক্ষক বিশেষ ব্যবস্থা নিতে পারেননি। সুযোগ বুঝে ওই যুবক একটি কেবিনে ঢুকে পড়ে। এক মহিলা যাত্রীর মোবাইল, মানিব্যাগ হাতিয়ে সিটে এসে বসে পড়ে। মহিলা পরে টের পেয়ে চিৎকার করলে যাত্রীরা উঠে পড়েন। সহযাত্রীদের চুরির কথা জানান ওই মহিলা যাত্রী। এরপর অন্য যাত্রীরাও নিজেদের মালপত্তর তল্লাশি করে দেখেন অনেকের মোবাইল উধাও। খোয়া গিয়েছে টাকার ব্যাগ। টিকিট পরীক্ষকের সন্দেহ হওয়ায় এসকর্ট আরপিএফ ডেকে ওই যুবককে তল্লাশি করতে বলেন। এরপর একে একে বেরিয়ে আসে পাঁচটি খোয়া যাওয়া দামি মোবাইল। নগদ চার হাজার তিনশো টাকা।

চোরাই মাল উদ্ধার হওয়ার পর রাজস্থানের কোটায় দুষ্কৃতীকে নামিয়ে নেয় আরপিএফ। তাকে তুলে দেওয়া হয় জিআরপির হেফাজতে। সোমবার তাকে ভরতপুরের আদালতে তোলা হয়। এই ঘটনার পর যাত্রীদের সতর্ক করেছে রেল। সীমিত সংখ্যার ট্রেন, যাত্রী কম। কোভিড পরিস্থিতিতে টিকিট পরীক্ষক, আরপিএফ এমনকি যাত্রীরাও ট্রেনে ঘোরাফেরা করছেন কম। সেই সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছে দুষ্কৃতীরা। ফলে সেই সুযোগকে কাজে লাগাচ্ছে দুষ্কৃতীরা। টিকিট কেটে যাত্রীদের সঙ্গে যাত্রা করছে। ফলে তাদের শনাক্ত করা মুশকিল হয়ে পড়ছে। এহেন পরিস্থিতির জন্য যাত্রীদের সাবধান থাকতে অনুরোধ করেছে রেল।

[আরও পড়ুন: কোষাগার গড়ের মাঠ, কর্মীদের বেতন ও পেনশন দেওয়ার টাকা নেই রেলের!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement