২৬ কার্তিক  ১৪২৬  বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জঙ্গি দমনে পাকিস্তানের ভূমিকা নিয়ে ইতিমধ্যেই আন্তর্জাতিক মহলে একাধিক ফোরামে ভারত নালিশ করেছে। কিন্তু, তাতেও সুবিধা হয়নি খুব একটা। পাকিস্তানের স্বাভাব বদলায়নি। এখনও, পাক ভূমিকে সন্ত্রাসবাদের আতুড়ঘর বললে অত্যুক্তি হয় না। পাকিস্তানের মাটিতে অবাধ বিচরণ জঙ্গিদের। এদিকে, পাক প্রধানমন্ত্রী বিশ্বজুড়ে শান্তির বার্তা আওড়ে যাচ্ছেন। এবার তাঁকে তীব্র কটাক্ষ শানালেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। বিদ্রুপের সঙ্গে তিনি বললেন, পাকিস্তান চাইলে ভারত সেনাও পাঠাতে পারে পাকিস্তানে।

[আরও পড়ুন: বিজেপির সঙ্গ ছাড়া ভুল হয়েছে, অবশেষে স্বীকার করলেন চন্দ্রবাবু]

হরিয়ানার কার্নলে একটি নির্বাচনী জনসভায় গিয়ে রাজনাথ বলেন, “আমি পাকিস্তানকে একটা পরামর্শ দিতে চাই। আপনারা যদি সন্ত্রাসদমনে সত্যি সত্যি ইচ্ছুক হয়ে থাকেন, তাহলে আমরা আপনাদের সাহায্য করতে রাজি আছি। আপনারা যদি আমাদের সেনার সাহায্য চান, তাহলে আমরা আপনাদের সাহায্যের জন্য সেনাও পাঠাতে পারি।” তবে, সাহায্যের আশ্বাস দেওয়ার পাশাপাশি ইমরানকে হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, পাকিস্তান যদি সন্ত্রাসে মদত দেওয়া বন্ধ না করে, তাহলে ভারত আরও বিপজ্জনক হতে পারে।

[আরও পড়ুন: ‘ভারতীয় মুসলিমরাই সবচেয়ে সুখী’, বলছেন মোহন ভাগবত]

ইমরান খানের উদ্দেশে রাজনাথের সতর্কবার্তা, “আপনারা দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে ১৯৪৭ সালে দেশভাগ করেছেন। ১৯৭১ সালে আপনাদের দেশ দু ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছে। যদি, ভবিষ্যতে এমন কোনও পদক্ষেপ করেন, তাহলে আপনাদের দেশ আবারও ভাঙবে। আমি ইমরান খানের রাষ্ট্রসংঘের বক্তব্য শুনেছি। ওঁ বলছে, কাশ্মীরিরা স্বাধীনতা না পাওয়া পর্যন্ত আমরা লড়াই করব। বলছে, আন্তর্জাতিক মহলে নালিশ করবে। আমি সাফ জানিয়ে দিতে চাই, ভারত কারও কাছে মাথা নত করবে না। ভারতকে কেউ চাপ দিতে পারবে না।”
হরিয়ানায় আগামী ২১ অক্টোবর নির্বাচন। ফলপ্রকাশ ২৪ অক্টোবর। তাঁর আগে সে রাজ্যে জোরকদমে প্রচার করছে বিজেপি। মূলত সেনা, কাশ্মীর, ৩৭০ ধারা, পাকিস্তান এবং রাফালে ইস্যুতেই সুর চড়াচ্ছেন বিজেপি নেতারা। অন্যদিকে, কংগ্রেসের প্রচারের মূল হাতিয়ার সরকারের দুর্নীতি। এবং

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং