Advertisement
Advertisement
Agnipath

লোকসভায় ধাক্কা খেতেই অগ্নিপথে বদল! অগ্নিবীরদের বাড়তি সুবিধার কথা ভাবছে কেন্দ্র

২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে এই 'অগ্নিপথ' প্রকল্পকে সরকারের বিরুদ্ধে হাতিয়ার করে কংগ্রেস। যার প্রভাবও পড়ে একাধিক রাজ্যে।

Review of Agnipath, Defence top priorities
Published by: Subhajit Mandal
  • Posted:June 12, 2024 3:20 pm
  • Updated:June 12, 2024 3:20 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনে ধাক্কা খেতেই অগ্নিপথ প্রকল্প নিয়ে ভাবনা-চিন্তা শুরু করল কেন্দ্র। সূত্রের খবর, অগ্নিপথ প্রকল্পের অধীনে অগ্নিবীররা যেসব সুবিধা পান, তা আরও খানিকটা বাড়ানো যায় কিনা ভাবনা-চিন্তা শুরু করেছে তৃতীয় মোদি সরকার। এমনটাই খবর এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রের।

২০২২ সালে অগ্নিপথ প্রকল্প (Agnipath Project) চালু করে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকার। এই প্রকল্পে প্রতিবছর ৪৫ থেকে ৫০ হাজার সেনা জওয়ান নিয়োগ করা হয়। নিযুক্তরা চার বছর পর অবসর নেবেন। এদের মধ্যে ২৫ শতাংশকে আরও ১৫ বছরের জন্য নিয়োগ করা হবে। প্রকল্প ঘোষণার পরেই দেশজুড়ে তুমুল আন্দোলন শুরু হয়ে যায়। হিংসাত্বক আন্দোলনের জেরে গ্রেপ্তার করা হয় বেশ কয়েকজন কর্মপ্রার্থীকে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ৬০ ঘন্টায় ৩ জঙ্গি হামলা! আতঙ্কে কাঁপছে কাশ্মীর, শহিদ এক জওয়ান]

২০২৪ লোকসভা নির্বাচনে এই ‘অগ্নিপথ’ প্রকল্পকে সরকারের বিরুদ্ধে হাতিয়ার করে কংগ্রেস। যার প্রভাবও পড়ে একাধিক রাজ্যে। রাজস্থান, হরিয়ানা, পাঞ্জাবের মতো রাজ্যে ভালোমতো ধাক্কা খায় গেরুয়া শিবির। উত্তরপ্রদেশ, বিহারে বিজেপির ধাক্কার নেপথ্যেও অন্যতম ইস্যু ছিল এই ‘অগ্নিবীর’ প্রকল্প। সেটা আন্দাজ করতে পেরেই কেন্দ্রের তরফে অগ্নিপথ নিয়ে মানুষের অসন্তোষের কারণ নিয়ে তথ্যতালাশ শুরু করে প্রতিরক্ষামন্ত্রক। সূত্রের দাবি, ফের প্রতিরক্ষামন্ত্রী পদে দায়িত্ব পেয়েই রাজনাথ সিং সেই অসন্তোষ মেটাতে উদ্যোগ নিচ্ছেন।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ফের অন্ধ্রের মুখ্যমন্ত্রী পদে ‘সিইও’ চন্দ্রবাবু, শপথ পবন কল্যাণ-নর লোকেশের]

সূত্রের দাবি, অগ্নিপথ নিয়ে বেশ কয়েকটি প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। এর মধ্যে সবার প্রথম হল, অগ্নিপথের মাধ্যমে নিযুক্ত জওয়ানদের স্থায়ীকরণের পরিমাণ বাড়ানো। আগে অগ্নিবীরদের মধ্যে ২৫ শতাংশকে ১৫ বছরের জন্য চাকরিতে বহাল রাখার নিয়ম ছিল। এবার সেটা বেড়ে হতে পারে ৪০-৫০ শতাংশ। শুধু তাই নয়, জওয়ানদের অন্যান্য সুবিধাও বাড়তে পারে। ইন সার্ভিস অবস্থায় আহত হলে বা জওয়ানের মৃত্যু হলে, সাধারণ সেনা জওয়ানদের মতো সুবিধা দেওয়ার কথাও ভাবা হতে পারে। যদিও এই সবগুলিই প্রস্তাবের পথে। এ নিয়ে মন্ত্রকে বিস্তারিত আলোচনার পরই এগুলো কার্যকর করা হতে পারে।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ