BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

প্রচারে সেনা ‘তাসে’ আপত্তি, রাষ্ট্রপতিকে চিঠি ১৫৬ প্রাক্তন সামরিক কর্তার

Published by: Tanujit Das |    Posted: April 12, 2019 3:32 pm|    Updated: April 23, 2019 6:06 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজনৈতিক স্বার্থে সেনার ব্যবহার সম্পর্কিত কোনও চিঠি এসে পৌঁছায়নি তাঁদের দপ্তরে৷ সূত্রের খবর, বিতর্ক মাথাচাড়া দিতে এমনই বার্তা দেওয়া হয়েছে রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফে৷ এখানেই শেষ নয়, এই চিঠিতে যে সমস্ত প্রাক্তন সেনা আধিকারিকদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে, এবার ধীরে ধীরে তাঁদের অনেকেই এই চিঠির বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছেন৷ চিঠির বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন তাঁদের কয়েকজন৷ তাঁরা জানিয়েছেন, না বলেই তাঁদের নাম উল্লেখ করা হয়েছে ওই চিঠিতে৷

[ আরও পড়ুন: রাজনৈতিক দলগুলিকে অনুদান সম্পর্কিত তথ্য জমার নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের ]

বৃহস্পতিবারই প্রকাশ্যে আসে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের উদ্দেশ্যে লেখা সেনা আধিকারিকদের বিতর্কিত চিঠিটি৷ যেখানে লেখা হয়, রাজনৈতিক স্বার্থে সেনাকে ব্যবহার করার বিষয়টিকে অভ্যেসে পরিণত করেছেন রাজনীতিকরা৷ সেনার বীরত্বকে নিজ স্বার্থে ব্যবহার করছেন তাঁরা৷ রাজনৈতিক প্রচারে বারবার করে ব্যবহার করছে সেনাকে৷ সেনার কৃতিত্বকে ফলাও করে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হচ্ছে৷ যা বিপজ্জনক প্রবণতা৷ সেকারণে একাজ বন্ধ করা উচিত৷ চিঠির মাধ্যমে বিষয়টি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের নজরে আনা হয়৷ এবং সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয় ১৫৬ জন প্রাক্তন সেনা আধিকারিকের স্বাক্ষর৷ যাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য তিন সেনার আট প্রাক্তন প্রধানের নাম৷ চিঠিতে নাম রয়েছে প্রাক্তন সেনাপ্রধান জেনারেল এসএফ রডরিগেজ, জেনারেল শংকর রায়চৌধুরি ও জেনারেল দীপক কাপুরের৷ নাম রয়েছে চারজন প্রাক্তন নৌসেনা প্রধানের এবং এক প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধানের৷

[ আরও পড়ুন: স্নাতক নন, অবশেষে নির্বাচনী হলফনামায় স্বীকার স্মৃতি ইরানির ]

বিতর্ক মাথাচাড়া দিতেই মুখ খোলেন চিঠিতে উল্লেখিত প্রাক্তন সেনা আধিকারিকদের একটা বড় অংশ৷ অনেকেই এই চিঠিতে স্বাক্ষরের কথা অস্বীকার করেন৷ প্রাক্তন সেনাপ্রধান এসএফ রডরিগেজ জানান, ‘চাকরি জীবনে আমরা সর্বদা সরকারের নির্দেশ মেনে কাজ করেছি৷ আমরা সর্বদাই রাজনীতির উর্ধ্বে৷ যে কেউ, যা খুশি বলতে পারেন এবং তা পরে বিক্রি করতে পারেন৷ তবে চিঠি ওই চিঠিটি লিখেছেন, তাঁকে আমি চিনি না৷’ প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান এনসি সুরি বলেন, ‘‘সেনা সব সময় অরাজনৈতিক এবং নির্বাচিত সরকারকে সমর্থন করি৷ এবং এই চিঠিতে নাম উল্লেখের আগে, আমার মতামত নেওয়া হয়নি৷’’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement