২০ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  বুধবার ৩ জুন ২০২০ 

Advertisement

‘৯০ বছর ধরেই আক্রমণের শিকার আরএসএস’, অভিযোগ মোহন ভাগবতের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 21, 2019 12:35 pm|    Updated: October 21, 2019 12:35 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ৯০ বছর ধরেই আক্রমণ করা হচ্ছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘকে। সোমবার নাগপুরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে এই অভিযোগই করলেন সরসংঘচালক মোহন ভাগবত। এর পাশাপাশি রাজনীতির সঙ্গে তাঁর কোনও যোগ নেই বলেও আজ ফের দাবি করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘আলোচনায় রাজি, চেঁচামেচিতে নেই’, একান্ত সাক্ষাৎকারে নোবেলজয়ী অভিজিৎ]

সম্প্রতি মহারাষ্ট্র নির্বাচন উপলক্ষে একটি ইস্তেহার প্রকাশ করে বিজেপি। তাতে দামোদর বিনায়ক দামোদর সাভারকরকে ভারতরত্ন দেওয়ার বিষয়ে তারা কেন্দ্রকে আবেদন জানাবে বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। এরপরই দেশজুড়ে বিতর্ক শুরু হয়। কংগ্রেস-সহ সব বিরোধীরাই একযোগে বিজেপি ও আরএসএসকে আক্রমণ করতে থাকে। কংগ্রেসের তরফে কটাক্ষ করা হয়, ভারতকে এখন একমাত্র ভগবানই রক্ষা করতে পারে। বিজেপি বিষয়টি উত্থাপন করলেও এর পিছনে আরএসএসের মস্তিষ্ক আছে বলে অভিযোগ করে। এআইএমআইএম প্রধান আসাউদ্দিন ওয়েইসি বলেন, নাথুরাম গডসে-কেও এবার ভারতরত্ন দেবে বিজেপি। বিষয়টি নিয়ে তুমুল বিতর্কের মধ্যেই মুখ খোলেন বীর সাভারকরের নাতি রঞ্জিত সাভারকর। কংগ্রেসকে আক্রমণ করে দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীও সাভারকরের অনুগামী ছিলেন বলে মন্তব্য করেন।

সোমবার নাগপুরে ভোট দিয়ে বেরোনোর পর এই বিষয়ে মোহন ভাগবতকে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকরা। সাভারকরের ভারতরত্নের বিষয়ে কংগ্রেস যে তাদের বিরুদ্ধে কলকাঠি নাড়ার অভিযোগ এনেছে তাও উল্লেখ করেন। এপ্রসঙ্গে মোহন ভাগবত বলেন, ‘এটা নতুন কিছু নয়। গত ৯০ বছর ধরেই আক্রমণের শিকার হচ্ছে আরএসএস। তবে এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। সমাজ যেমন আগেও ঐক্যবদ্ধ ছিল আগামীতেও তাই থাকবে। আসলে এসব রাজনীতিরই অঙ্গ।’

[আরও পড়ুন:জানেন, ব্যাংক দেউলিয়া হলে সর্বোচ্চ কত টাকা ফেরত পেতে পারেন আপনি?]

এরপর তাঁকে প্রশ্ন করা হয় দুই রাজ্যের ফলাফল কী হবে তা নিয়ে। এর উত্তরে সংঘপ্রধান বলেন, ‘আমি কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব নই। তাই নির্বাচনের আগাম ফল সম্পর্কে কিছুই বলতে পারব না। এমনিতে তিনদিন বাদে ফলাফল প্রকাশ পেলে সবাই সবকিছু জানতে পারবেন। এমনিতে সংঘ চায় বাড়ি থেকে বেরিয়ে এসে সবাই ভোট দিক। ১০০ শতাংশ ভোট পড়ুক। আর ব্যক্তি বা পরিবেশ দেখে নয় নিজের অধিকার প্রয়োগ করুক ইস্যু দেখে।’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement