১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৫  রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮ 

মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও দীপাবলি ২০১৮ ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৫  রবিবার ১৮ নভেম্বর ২০১৮ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জঙ্গিবাদের মদত দেওয়ায় চরম অপমানের মুখে পাকিস্তান৷ আর এই অপমান করল আরএসএস৷ আগামী মাসেই রাজধানীতে তিনদিন ব্যাপী একটি আলোচনা সভার আয়োজন করতে চলেছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ৷ আলোচনা সভার বিষয় হল ‘Future of Bharat: An RSS perspective’৷ সেখানে আলোচনা সভায় বক্তৃতা দেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানান হচ্ছে এশিয়ার ৬০টি দেশের কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞদের৷ সূত্রের খবর, আমন্ত্রণ পত্র পৌঁছাচ্ছে না কেবল কোনও পাক কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞের কাছে৷ অন্যান্য দেশকে আমন্ত্রণ জানালেও, অতিথি তালিকায় নাম থাকছে না পাকিস্তানের৷

অর্থাৎ, এশিয়ার অন্যান্য দেশে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকলেও সেখানে কোনও ভাবেই পাক প্রতিনিধিদের দেখা যাবে না৷ অর্থাৎ, ডোকলাম সমস্যা থাকলেও বা কমিউনিস্ট হলেও চিনকে কাছে টানতে প্রস্তুত আরএসএস৷ কিন্তু সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে কোনও ইতিবাচক পদক্ষেপ না নেওয়ায় পাকিস্তানের সঙ্গে তৈরি হওয়া দূরত্ব বজায় রাখতে চাইছে তাঁরা৷ একথা স্পষ্ট করল হিন্দুত্ববাদী সংগঠনটি৷

[বাণিজ্য করতে চায় ভারত! দাবি তুলে সাড়া ফেললেন ট্রাম্প]

এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিতদের যে তালিকা তৈরি করা হয়েছে সেখানে এশিয়ার ৬০টি দেশ রয়েছে৷ কেবল বাদ পড়েছে পাকিস্তানের নাম৷ বিষয়টি স্বীকারও করেছেন আরএসএস শীর্ষনেতা অরুণ কুমার৷ তিনি বলেন, ”তাঁদের মদতে ভারতে বৃদ্ধি পাচ্ছে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ৷ তাঁরা সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করায় সীমান্তে প্রত্যেকদিন প্রাণ যাচ্ছে ভারতীয় জওয়ানদের৷ তাই পাকিস্তানকে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণের প্রশ্নই ওঠে না৷” জানা গিয়েছে, আমন্ত্রণ করা হচ্ছে সিপিএম সীতারাম ইয়েচুরিকে৷ নিমন্ত্রণপত্র পৌঁছে যাচ্ছে কমিউনিস্ট দেশ চিনের কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞদের কাছেও৷ এই বিষয়ে অরুণ কুমার বলেন, ”চিনের সঙ্গে ভারতের সাংস্কৃতিক মিল রয়েছে৷ ফলে তাঁদের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করা হচ্ছে৷”

[হাফিজ ইস্যুতে চুপ, পেশোয়ার হামলার ১৩ জঙ্গিকে ফাঁসির সাজা পাকিস্তানের]

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়কে তাঁদের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ করে কয়েক মাস আগেই সমগ্র দেশে সাড়া ফেলে আরএসএস৷ গেরুয়াপন্থীদের আরএসএস-এর অনুষ্ঠানে চরম কংগ্রেসপন্থী প্রণব মুখোপাধ্যায়ের উপস্থিতি নিয়ে চরম কৌতূহল ও বিতর্ক তৈরি হয় দেশজুড়ে৷ সেই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে হিন্দুত্ব ও ভারত সম্পর্কে নিজের মতামত ব্যক্ত করেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি৷ যা নিয়ে বেশ চর্চা হয় বিভিন্ন মহলে৷ জানা গিয়েছে, গত মাসের ১৭ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লিতে হবে অনুষ্ঠানটি৷ যেখানে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে বিজেপি-সহ সংঘ পরিবারের অন্যান্য শীর্ষ নেতৃত্বের৷ সরসংঘচালক মোহন ভাগবত নিজে পত্র পাঠিয়ে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন তাঁদের৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং