BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

এবার কি ভারতের হাতে আসতে চলেছে রাশিয়ার মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম S-500?

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 2, 2021 1:37 pm|    Updated: November 2, 2021 1:47 pm

Russia likely to export S-500 to India | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লাদাখ ও অরুণাচল প্রদেশে চোখ রাঙাচ্ছে চিন (China)। কাশ্মীরকে রক্তাক্ত করছে পাকিস্তানি জঙ্গিরা। এহেন পরিস্থিতিতে দু’টি ফ্রন্টে একসঙ্গে লড়াইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে বলেই মনে করছেন প্রতিরক্ষা বিশ্লেষকরা। এহেন পরিস্থিতিতে ভারতকে অত্যাধুনিক S-500 মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম দেওয়া হতে পারে বলে জানিয়েছে রাশিয়া।

[আরও পড়ুন: COP26: জলবায়ু নিয়ন্ত্রণে আরও উন্নতি করবে ভারত, গ্লাসগোয় ৫ ‘অমৃত তত্ত্ব’র সন্ধান দিলেন মোদি]

সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, রাশিয়ার মিলিটারি-টেকনিক্যাল কোঅপারেশনের ডিরেক্টর দিমিত্রি শুগায়েভ জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে ভারতকে এস-৫০০ মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেম দিতে পারে রাশিয়া। সোমবার রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানান, শীঘ্রই রাশিয়ার ফৌজের হাতে এই অত্যাধুনিক অ্যান্টি-এয়ারক্রাফ্ট মিসাইল সিস্টেমটি হাতে চলে আসবে। তারপরই শুগায়েভ জানান, রাশিয়ার বাহিনীর হাতে পর্যাপ্ত সংখ্যক S-500 চলে এলে হাতিয়ারটি রপ্তানি করা হবে। তিনি বলেন, “আমরা ভারত ও চিনকে এই হাতিয়ার দেওয়ার কথা ভাবছি। এছাড়া, বাকি বন্ধু দেশগুলিতে এই সিস্টেমটি রপ্তানি করার বিষয়টি নিয়ে চিন্তাভাবনা চলছে।”

জমি থেকে আকাশে আঘাত হানতে সক্ষম এই S-500 মিসাইল সিস্টেমটি। মূলত, S-400 সিস্টেমের আধুনিক সংস্করণ এটি। এই নয়া মিসাইল ডিফেন্স সিস্টেমটি প্রায় ৬০০ কিলোমিটার পর্যন্ত আঘাত হানতে পারে। যুদ্ধবিমান, ব্যালিস্টিক মিসাইল ধ্বংস করতেই এই সিস্টেমটি মোতায়েন করা হবে।

উল্লেখ্য, খুব শীঘ্রই সেনার হাতে আসতে চলেছে ভূমি থেকে আকাশে হামলায় সক্ষম S-400 মিসাইল সিস্টেম বা স্যাম। চলতি বছরের শেষেই এগুলি ভারতকে পাঠানো শুরু হবে। এমনটাই জানিয়েছে রুশ সংস্থা আলমাজ আন্তে। ভারতের আকাশকে অভেদ্য করে তুলতে অত্যাধুনিক এস-৪০০ (S-400) মিসাইল সিস্টেম কেনার জন্য রাশিয়ার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে ভারত। ভূমি থেকে বায়ুতে আঘাত হানতে সক্ষম এস-৪০০কে রাশিয়ার সবচেয়ে উন্নত ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা বলে মনে করা হয়। ২০১৪ সালে প্রথম দেশ হিসেবে রাশিয়ার থেকে এস-৪০০ কেনার চুক্তি করে চিন। তারপরই প্রেসিডেন্ট পুতিনের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পড়শিদের বাগে আনতে প্রয়োজন এস-৪০০। পাকিস্তানের কাছে প্রায় ২০ স্কোয়াড্রন মার্কিন এফ-১৬ বিমান রয়েছে। চিনের থেকেও বিপদের আশঙ্কা দিন-দিন বাড়ছে। ফলে দেশের সুরক্ষায় এই হাতিয়ার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

[আরও পড়ুন: রোমের G-20 সম্মেলন থেকে উধাও ব্রাজিল প্রেসিডেন্ট বলসোনারো! খোঁজ করতে গিয়ে আক্রান্ত সাংবাদিক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে