২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  শুক্রবার ১২ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দাম বাড়িয়েছে সৌদি, সুযোগ বুঝে ভারতে তেল বিক্রি বাড়াতে আগ্রহী রাশিয়া

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 6, 2022 12:44 pm|    Updated: August 6, 2022 12:44 pm

Russia undercuts Saudi Arabian oil in India as competition heats up। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত-সহ এশীয় দেশগুলির জন‌্য অপরিশোধিত তেলের দাম আচমকা বাড়িয়ে দিয়েছে সৌদি আরব। এই পরিস্থিতিতে বিশ্বের অন‌্যতম বৃহৎ তেল আমদানিকারী দেশ ভারতে রপ্তানি বাড়াতে ঝাঁপিয়ে পড়েছে রাশিয়া (Russia)। সৌদি আরবের (Saudi Arabia) বৃহত্তম রাষ্ট্রায়ত্ত তেল উত্তোলন ও বিপণন সংস্থা আরামকোর তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, চলতি আগস্ট থেকে দেশটির জ্বালানি তেলের এশীয় ক্রেতাদের প্রতি ব্যারেল তেলের জন্য অতিরিক্ত ৫০ সেন্ট (হাফ ডলার) বেশি দিতে হবে। অতীতে এশীয় ক্রেতাদের জন্য সৌদি আরবের প্রতি ব্যারেল জ্বালানি তেলের দাম এই পরিমাণ বৃদ্ধির নজির নেই।

উল্লেখ‌্য, সৌদি আরব তার বেশিরভাগ তেল এশিয়ায় বিক্রি করে। চিন, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপান তাদের সবচেয়ে বড় ক্রেতা। সৌদি দাম বাড়ানোয় ভারতের মতো বড় চাহিদার দেশে তেল বিক্রি বাড়ানোর বড় সুযোগ হিসাবে দেখছে মস্কো। এমনিতেই, ইউক্রেন যুদ্ধের প্রেক্ষিতে আমেরিকা-সহ ন‌্যাটো সদস‌্যভুক্ত দেশগুলি রাশিয়ার উপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা চাপানোর পর, ভারতকে আমেরিকার চেয়ে অনেক কম দামে তেল সরবরাহ করছে রাশিয়া।

[আরও পড়ুন: প্রেসিডেন্সি জেলের ২ নম্বর সেলে ঠাঁই পার্থর, কীভাবে কাটল প্রথম রাত?]

এমনকী এপ্রিলেও প্রতি ব‌্যারেল অপরিশোধিত তেল সৌদি আরবের থেকে কম দামে রাশিয়ার কাছ থেকে কিনেছে ভারত। ভারত সরকারের প্রকাশিত তথ‌্য থেকে ‘ব্লুমবার্গ’ দাবি করেছে, গত জুন মাসে ব‌্যারেল প্রতি ১৯ ডলার কম দাম নিয়েছে রাশিয়া। জুনে ভারতে সবচেয়ে বেশি পরিমাণ তেল রফতানি করেছে ইরাক। তারপরেই রয়েছে রাশিয়া। উল্লেখ‌্য, ভারত তার চাহিদার ৮৫ শতাংশ তেলই বিদেশ থেকে আমদানি করে।

মন্থর অর্থনীতি অপরিশোধিত তেলের চাহিদাকে আঘাত করতে শুরু করেছে, এমন ইঙ্গিত থাকা সত্ত্বেও সৌদি আরামকো এশিয়ার দেশগুলিতে পরের মাসে চালানের জন্য তার আরব লাইট গ্রেডকে (হাই সালফার ক্রুড ওয়েল) পশ্চিম এশিয়ার বেঞ্চমার্কের উপরে ব্যারেল প্রতি দাম বাড়িয়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বিশ্বজুড়ে জ্বালানি তেলের দাম বাড়তে থাকায় বাজারের সঙ্গে সঙ্গতি রাখতে সৌদি সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

আরেকটি কারণ হল, বুধবার সৌদি আরব ও রাশিয়ার জ্বালানি তেল বাণিজ্য বিষয়ক জোট ‘ওপেক প্লাস’-এর তরফে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জুলাই মাসে সৌদি আরবে জ্বালানি তেলের উৎপাদন কম হয়েছে। নিজেদের জ্বালানি তেল বিক্রির জন‌্য এশীয় ক্রেতাদের ক্ষেত্রে অন্যান্য ক্রেতাদের তুলনায় কিছুটা ছাড় দেয় সৌদি আরব। কিন্তু ওপেক প্লাসের বিবৃতির একদিন পরই তেলের দাম বাড়িয়ে বিবৃতি দিল আরামকো।

[আরও পড়ুন: কমনওয়েলথ গেমস: কুস্তিতে সোনা জয় বজরং-সাক্ষী-দীপকের, রুপো অংশু মালিকের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে