BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বরফ গলার ইঙ্গিত! দিল্লিতে রাহুল গান্ধীর দেখা শচীন পাইলটের, দাবি কংগ্রেস সূত্রের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 10, 2020 2:10 pm|    Updated: August 10, 2020 5:00 pm

Sachin Pilot other rebel MLA meet top Congress leaders

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজস্থান বিধানসভার বিশেষ অধিবেশনের চারদিন আগে কংগ্রেসের অন্দরের বিবাদ মিটে যাওয়ার ইঙ্গিত মিলল। কংগ্রেস সূত্রের দাবি, রাজস্থানের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী তথা প্রাক্তন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি শচীন পাইলট (Sachin Pilot) নাকি দলে ফেরার জন্য কংগ্রেসের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে দেখা করছেন। এমনকী খোদ রাহুল গান্ধীর (Rahul Gandhi) সঙ্গেও দেখা হয়েছে তরুণ এই নেতার। সোমবার দুপুরে দিল্লিতে সোনিয়ার বাড়ি থেকে রাহুল এবং প্রিয়াঙ্কাকে একসঙ্গে বেরতে দেখা যায়। তাতেই পাইলটের সঙ্গে কংগ্রেস শীর্ষনেতাদের বৈঠকের জল্পনা আরও বেড়েছে। যদিও পাইলট শিবির এই বৈঠক নিয়ে কোনও মন্তব্য করেনি। তবে কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা যে তাঁদের দাবি মানতে রাজি হয়েছেন, সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন তাঁরা।  

এখন থেকে মাসখানেক আগে মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের (Ashok Gehlot) বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করে ১৮ জন অনুগামীকে নিয়ে দিল্লি চলে যান শচীন পাইলট। তারপর তাঁকে দলে ফেরানোর বহু চেষ্টা সত্বেও কাজ হয়নি। যত দিন গিয়েছে পাইলট বনাম গেহলটের এই লড়াই নতুন নতুন মাত্রা পেয়েছে। পাইলটের অভিযোগ, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে কোণঠাসা করার চেষ্টা করছেন। গেহলটকে না সরানো পর্যন্ত তাঁর পক্ষে দলে ফেরা সম্ভব নয়। গেহলটের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে গেলেও দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের বিরুদ্ধে এতদিন টু শব্দটি করেননি তরুণ কংগ্রেস নেতা। বরং কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগ রেখে চলেছেন তিনি। এরই মধ্যে একবার গোপনে দিল্লির আশেপাশে কোথাও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর (Priyanka Gandhi) সঙ্গেও বৈঠক হয়েছে তাঁর, এমনটাই দাবি কংগ্রেস সূত্রের। প্রিয়াঙ্কার সুত্র ধরেই নাকি সোমবার রাহুলের সঙ্গে দেখা করতে আসেন শচীন। আসলে এই তরুণ নেতা দলে নিজের ভবিষ্যৎ স্পষ্ট করে নিতে চান। যদিও, এসবই প্রকাশ্যে অস্বীকার করছে পাইলট শিবির।

[আরও পড়ুন: অর্থনীতিকে বাঁচাতে এখনই প্রয়োজন এই তিন পদক্ষেপের, মোদিকে পরামর্শ মনমোহনের]

পাইলট যখন দিল্লিতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন, জয়পুরে বসে গেহলট তখন অন্য ছক কষছেন। গেহলট শিবিরের বিধায়করা ইতিমধ্যেই দাবি তুলছেন, যারা দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক পদক্ষেপ করা হোক। তাঁদের দল থেকে বিতাড়িত করা হোক। এসবের মধ্যে আবার পাইলট শিবিরের জনা ছ’য়েক বিধায়ক নাকি গেহলটের সঙ্গেও যোগাযোগ রাখছেন। অর্থাৎ সার্বিকভাবে পাইলটের কংগ্রেস শিবিরে ফিরে আসার সম্ভাবনা দিন দিন উজ্বল হচ্ছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে