×

৫ চৈত্র  ১৪২৫  বৃহস্পতিবার ২১ মার্চ ২০১৯   |   শুভ দোলযাত্রা।

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমাকে প্রার্থী করুন, আমি হিন্দু দলিত। আজব দাবি উত্তরপ্রদেশের বিজেপি সাংসদ সাক্ষী মহারাজের। তাঁর মতে, একমাত্র জাত দেখেই ভোটে প্রার্থী দাঁড় করানো উচিত বিজেপির। আসলে, উত্তরপ্রদেশে সপা-বসপা জোটকে সামলাতে প্রার্থীতালিকায় বড়সড় রদবদল করতে চাইছে গেরুয়া শিবির। ছাঁটাইয়ের তালিকায় পড়তে পারেন সাক্ষী মহারাজ। আশঙ্কা থেকে আগেভাগে দলীয় নেতৃত্বকে চিঠি লিখেছেন উন্নাওয়ের সাংসদ। এবারে তাঁর দাবি, যেহেতু তিনি হিন্দু ওবিসি, তাই তাঁকে ভোটে প্রার্থী করতেই হবে।

[লোকসভায় বৃহত্তম দল হবে বিজেপিই, মানলেন এনসিপি নেতা শরদ পাওয়ার]

ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশে দলীয় সভাপতি মহেন্দ্র নাথ পাণ্ডেকে একটি চিঠি লিখেছেন সাক্ষী মহারাজ। যাতে তিনি লিখছেন, “আমি ওবিসি, সাধু, তাই উন্নাওতে আমাকেই প্রার্থী করা উচিত। দল যদি অন্য কিছু ভাবে তাহলে ভুল বার্তা যাবে। আমি প্রার্থী না হলে দেশ এবং রাজ্যের কোটি কোটি বিজেপি কর্মীর ভাবাবেগে আঘাত করা হবে। যার ফলাফল ভাল হবে না।” আসলে গোটা উত্তরপ্রদেশের মধ্যে তিনিই দলের একমাত্র ওবিসি সাংসদ। তাই তাঁকে প্রার্থী না করলে উত্তরপ্রদেশে বিজেপির ওবিসিদের মধ্যে কোনও প্রতিনিধি থাকবে না। তাই জাতের ভিত্তিতে তাঁরই প্রার্থী হওয়া উচিত। এমনটাই চিঠিতে দাবি করেছেন সাক্ষী । বিজেপির উগ্র হিন্দুত্ববাদী মুখগুলির মধ্যে অন্যতম সাক্ষী মহারাজ। নানাসময় একাধিক মুসলিম-বিদ্বেষী মন্তব্যও করেছেন তিনি।

[স্বাধীনতার পর ‘আদর্শচ্যুত’ কংগ্রেসকে ভেঙে দিতে চেয়েছিলেন গান্ধীজি: প্রধানমন্ত্রী]

গত লোকসভায় বিশাল ব্যবধানে জিতেছিলেন সাক্ষী মহারাজ। তিনি পেয়েছিলেন ৫ লক্ষ ১৮ হাজার ৮৩৪ টি ভোট। দ্বিতীয় স্থানে সমাজবাদী পার্টির প্রার্থী পেয়েছিলেন ২ লক্ষ ৮ হাজার ৬৬১টি ভোট অন্যদিকে, তৃতীয় স্থানে ছিল বসপা। তিনিও পেয়েছিলেন ২ লক্ষের বেশি ভোট। সপা-বসপার ভোট একসঙ্গে যোগ হলে বিপদে পড়তে হতে পারে সাক্ষীকে। তাছাড়া বারবার বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য এমনিতেই তলানিতে তাঁর জনপ্রিয়তা। তাই তাঁকে প্রার্থী নাও করা হতে পারে। এই পরিস্থিতিতে নিজের প্রার্থীপদের স্বপক্ষে জাতকেই প্রাথমিক যোগ্যতা হিসেবে তুলে ধরেছেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং