BREAKING NEWS

২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

কাঠুয়া গণধর্ষণ মামলার ফয়সালা করবে না সুপ্রিম কোর্ট, নাকচ সিবিআই তদন্তের দাবিও

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 7, 2018 8:23 pm|    Updated: May 7, 2018 8:23 pm

SC transfers Kathua rape case trial to Pathankot

সংবাদ প্রতিজিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাঠুয়া গণধর্ষণ মামলার সিবিআই তদন্ত চেয়ে সুপ্রিম কোর্টের কাছে আপিল করেছিল অভিযুক্তরা। সেই আবেদন সোমবার খারিজ করে দিল দেশের সর্বোচ্চ আদালত। মামলাটি পাঠানকোট আদালতে পাঠিয়ে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

[ হাই হিল জুতো সামলাতে ব্যস্ত মা, হাত ফসকে ব্যালকনি থেকে পড়ে মৃত্যু শিশুর ]

সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ, সুপ্রিম কোর্ট মামলাটি শুধু যে পাঠানকোট আদালতে যে পাঠিয়েছে তা নয়, সেই সঙ্গে কিছু নির্দেশিকাও জারি করেছে। বলেছে, এই মামলার প্রতিটি শুনানি করতে হবে ক্যামেরার সামনে। সমস্ত শুনানির রেকর্ড রাখতে হবে। যাতে পরে দরকার পড়লে সেই রেকর্ড কাজে লাগানো যায়। সুপ্রিম কোর্ট আরও জানিয়েছে, অভিযুক্তদের দাবি মেনে নিয়ে ঘটনার সিবিআই তদন্ত হবে না। রাজ্য যেভাবে তদন্ত চালাচ্ছে, সেভাবেই তদন্ত চলবে। এছাড়া জম্মু ও কাশ্মীর সরকারকে পাঠানকোট আদালতে আইনজীবী নিয়োগেরও অনুমতি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সেই সঙ্গে আক্রান্তের পরিবারকে উপযুক্ত নিরাপত্তা দেওয়ার কথাও বলেছে। তবে এর আগেই জম্মু ও কাশ্মীর সরকার সুপ্রিম কোর্টকে এবিষয়ে আশ্বস্ত করেছিল। প্রশাসন বলেছিল, নিরাপত্তার জন্য যা দরকার, সব তারা করবে। মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে ৯ জুলাই।

[ প্রধান বিচারপতিকে ইমপিচমেন্ট, নায়ডুর সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে কংগ্রেস ]

২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে ৮ বছরের শিশুকন্যাকে গণধর্ষণ করে খুন করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছিল জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়া গ্রামে। পরে এলাকা থেকে নির্যাতিতার দেহ উদ্ধার হয়। ঘটনার তদন্ত শুরু করে পুলিশ। তদন্তে সাত জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট গঠন করা হয়। এরপর কাঠুয়া জেলা আদালতে ওই সাত জন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। এর মাঝেই কাঠুয়া গণধর্ষণে আক্রান্তের পরিবার চেয়েছিল মামলাটি চণ্ডীগড়ে স্থানান্তর করা হোক। কিন্তু অভিযুক্তরা তা চায়নি। এছাড়া তারা ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছিল। যা সোমবার নাকচ করে দিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে