৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ফাঁকা বোতল ফেললেই রেলযাত্রীরা পাবেন আকর্ষণীয় অফার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 20, 2016 9:42 am|    Updated: June 20, 2016 9:51 am

An Images

নব্যেন্দু হাজরা: মোবাইলে রিচার্জ থেকে শুরু করে আউটলেটে ডিসকাউন্ট ভাউচার৷ বা নামী রেস্তোরাঁর পিৎজা৷ সবই রয়েছে অফারে৷ লাগবে না এক টাকাও৷ কেন? কোথায়? কীভাবে ভাবছেন তো? উত্তরটা দিয়েই দেওয়া যাক তাহলে! এই অসামান্য অফার নিয়ে এসেছে ভারতীয় রেল৷ তাও আবার স্টেশন পরিষ্কার রাখতে৷

এবার থেকে স্টেশনে বসছে ‘স্বচ্ছ ভারত রিসাইকল মেশিন’৷ ট্রেনের কামরায় বা প্ল্যাটফর্মে বসে জল খেয়ে ফাঁকা বোতলটা লাইনে না ফেলে শুধু ফেলতে হবে এই মেশিনে৷ যত বোতল ফেলবেন, মেশিনের ভিতর থেকে বেরিয়ে আসবে তত পয়েন্টের কুপন৷ পয়েন্ট জমিয়ে তা নিয়ে চলে যান মনোমতো শপিং মল, ডোমিনোস বা ম্যাকডোনাল্ডসের মতো জায়গায়৷ আর পেয়ে যান আকর্ষণীয় অফার৷

পিপিপি মডেলে স্টেশন পরিষ্কার রেখে যাত্রীদের সুবিধা দিতেই এই পরিকল্পনা করছে রেল৷ সম্প্রতি মুম্বইয়ের চার্চগেট স্টেশনে একটি মেশিন বসানো হয়েছে৷ পরীক্ষামূলকভাবে ১০টি স্টেশনে এমন মেশিন বসবে৷ শীঘ্রই দেশের গুরুত্বপূর্ণ এবং বড় স্টেশনগুলিতেও এই যন্ত্র বসানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে৷ যার মধ্যে হাওড়া-শিয়ালদহের মতো গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে রেলসূত্রে৷ পাশাপাশি রেলের এই পরিকল্পনা যদি যাত্রীদের মধ্যে জনপ্রিয় হয়, সেক্ষেত্রে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ দূরপাল্লার ট্রেনেও বসবে এই মেশিন৷

মেশিনের একদিক থাকবে এলইডি দিয়ে সাজানো৷ যাত্রীরা যে মুহূর্তে ওই মেশিনে বোতল ফেলবেন, স্ক্রিনে ভেসে উঠবে তিনটি অপশন৷ মোবাইলে রিচার্জ, আউটলেটে ডিসকাউন্ট ভাউচার এবং ডোনেশন৷ যে অপশনে ক্লিক করবেন যাত্রী, সেই মতোই পয়েন্টের কুপন বেরিয়ে আসবে মেশিন থেকে৷ আর তা জমিয়েই যাত্রী পাবেন নানা অফার৷

একেকটি মেশিনে প্রতিদিন ৫০০টি করে বোতল ফেলা যাবে৷ সেই বোতলগুলিকে পুনর্ব্যবহারযোগ্য করবে এই মেশিন৷ তবে তা আর পানীয় জল ভরার জন্য ব্যবহার করা হবে না৷ সেই প্লাস্টিক সরবরাহ করা হবে ফাইবার প্রস্তুতকারক সংস্থাকে৷ তারা এই প্লাস্টিক বিভিন্ন রকমের কার্পেট, কাপড়, ব্যাগ তৈরিতে কাজে লাগাবে৷

রেল সূত্রে খবর, এই মেশিন স্টেশনে বসাতে এবং এই অফার দিতে রেলের কোনও অর্থ ব্যয় হচ্ছে না৷ উল্টে বিজ্ঞাপনবাবদ আয় হবে৷ একেকটি মেশিনের দাম সাত লক্ষ টাকা৷ সেই টাকা দেবে বিজ্ঞাপন সংস্থা৷ মেশিনের চারধারে ওই সংস্থার বিজ্ঞাপন দেওয়া হবে৷ আপাতত এই মেশিনগুলি প্রোভাইড করছে ওখার্ড ফাউন্ডেশন৷ এই সংস্থাই যুক্ত ম্যাকডোনাল্ডস, ডোমিনোসের সঙ্গে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement