BREAKING NEWS

২৬ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অতীত সব রেকর্ড ভেঙে দিল দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা, বাড়ছে উদ্বেগ

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 22, 2020 9:51 am|    Updated: May 22, 2020 10:36 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে মদের দোকানের বাইরে লম্বা লাইন। আর অন্যদিকে বাড়ি ফেরার তাগিদে রেল স্টেশন কিংবা বিমানবন্দরে ভিড় জমাচ্ছেন নাগরিকরা। এককথায়, লকডাউনের চতুর্থ দফায় মানুষের বাড়ি থেকে বেরনোর হার অনেকটাই উর্ধ্বমুখী। আর ঠিক এই কারণেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। শুক্রবার আক্রান্তের বৃদ্ধির হার পুরনো সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিল।

গত কয়েকদিন ধরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যাটা একদিনে ৫ হাজারের উপরে পৌঁছে যাচ্ছিল। কিন্তু শুক্রবারের সংখ্যা নিঃসন্দেহে আরও উদ্বেগজনক। একলাফে তা ছ’হাজারের গণ্ডি পেরিয়ে গেল। এদিন সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের (Ministry of Health and Family Welfare) দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৬ হাজার ৮৮ জনের শরীরে মিলেছে মারণ ভাইরাস। যার জেরে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ১ লক্ষ ১৮ হাজার ৪৪৭ জন। অ্যাকটিভ কেস ৬৬ হাজার ৩৩০। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যাতেও রেকর্ড। করোনার বলি হয়েছেন ১৪৮ জন। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন ৩৫৮৩ জন।

[আরও পড়ুন: খিদের জ্বালায় মরা কুকুরের মাংস খাচ্ছে মানুষ, ভাইরাল রাজস্থানের ভিডিও]

লক্ষ্মীবারে নতুন করে ৫ হাজার ৬০৯ জনের শরীরে থাবা বসিয়েছিল করোনা। বুধবার সংখ্যাটা ছিল ৫ হাজার ৬১১। অর্থাৎ প্রায় একই হারে পরপর দু’দিন বাড়ে আক্রান্তের সংখ্যা। কিন্তু এদিন অতীত সব রেকর্ড ভেঙে একলাফে অনেকটাই বাড়ল আক্রান্ত। দেশে সবচেয়ে করুণ পরিস্থিতি মহারাষ্ট্রের। হু হু করে সেখানে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত ২৫ হাজার ৩১৭ জন মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত বলে জানিয়েছে সে রাজ্যের স্বাস্থ্যদপ্তর। যত দিন যাচ্ছে করোনা সংক্রমিতের হার নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। অথচ প্রশাসন এখনও লকডাউন শিথিল করতে ব্যস্ত। বিমান ও ট্রেন পরিষেবা চালু হলে সংখ্যা যে বিপুল হারে বাড়বে, তা আন্দাজ করাই যায়।

এদিকে, মার্কিন মুলুকেও অব্যাহত কোভিড-১৯-এর দাপট। জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ১২৫৫ জনের। যদিও সাম্প্রতিক অতীতে একদিনে প্রায় ৩ হাজার মানুষকেও করোনার বলি হতে দেখেছে সে দেশ। তাই এদিনের সংখ্যা তুলনামূলক কম।

[আরও পড়ুন: PM-CARES ফান্ড নিয়ে টুইট, সোনিয়া গান্ধীর বিরুদ্ধে দায়ের হল মামলা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement