৭  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পাঞ্জাবের আকাশে ‘স্পাই’ পায়রাকে ঘিরে বাড়ছে রহস্য

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 24, 2016 2:40 pm|    Updated: September 24, 2016 2:40 pm

Spy pigeon in Punjab raised doubts of further attack

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জঙ্গি নয়, এবার ভারতে ‘স্পাই’ পায়রা পাঠাল পাকিস্তান৷ কাশ্মীরে উরি সেনা ছাউনিতে হামলার পর পাঞ্জাবে সন্দেহজনক পায়রা ঘিরে রহস্য বাড়ছে৷ ভারত-পাকিস্তান সীমান্তবর্তী পাঞ্জাবের হোসিয়ারপুর গ্রামে বৃহস্পতিবার নরেশ কুমারের বাড়িতে উড়ে আসে ‘জঙ্গিদূত’ পায়রাটি৷ সাদা পায়রাটির ডানায় উর্দুতে লেখা ছিল রবি, বুধ, বৃহস্পতি৷ উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহে ঠিক এই দিনগুলোতেই ভারতে হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা৷ রবিবার উরিতে, বুধবার নগাঁওয়ে, বৃহস্পতিবার বান্দিপোরায় হামলা হয়েছিল৷ পাক জঙ্গিরা পায়রা পাঠিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশকারী জঙ্গিদের কোনও সংকেত দিতে চাইছে কি না তা খতিয়ে দেখছেন গোয়েন্দারা৷

অন্যদিকে বিশেষ সূত্রে খবর মিলছে, উরিতে জৈশ-ই-মহম্মদের জঙ্গিরা হামলা চালায়নি৷ হামলা করেছিল লস্কর জঙ্গিরা৷ নিহত চার জঙ্গির কাছ থেকে বেশ কিছু নকশা পেয়েছেন তদন্তকারী অফিসাররা৷ সেই সব নকশা থেকে স্পষ্ট, উরির চেয়েও বড় রকমের হামলা করতে চেয়েছিল জঙ্গিরা৷ কাশ্মীরের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ সেনা ছাউনি, জমি-বাড়ির নকশা ছিল জঙ্গিদের কাছে৷

পাকিস্তানের পায়রা উদ্ধারকারী নরেশের বক্তব্য, বৃহস্পতিবার রাতে পায়রাটি তাঁর বাড়ির সামনে এসে পড়ে যায়৷ শুক্রবার ভোরে তিনি পায়রাটি দেখতে পান৷ ক্লান্ত, অসুস্থ পায়রার শুশ্রুষা করতে গিয়ে ডানায় সাংকেতিক ভাষায় কিছু লেখা দেখতে পান৷ বিষয়টি মুকেরিয়ান গ্রামের পুলিশকে জানান৷ ডেপুটি পুলিশ সুপারিনটেনডেন্ট ভূপিন্দর সিং পায়রাটিকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখেন৷ সাংকেতিক লেখা বুঝতে না পারলেও পাখিটি যে পাকিস্তান থেকে উড়ে এসেছে তা অনুমান করেই সতর্ক হয়ে যায় পুলিশ৷ পায়রাটির এক্স-রে করে দেখা হয়, শরীরে কোনও ক্যামেরা বা বিস্ফোরক লুকনো আছে কি না৷ যদিও শেষপর্যন্ত সেসব কিছু মেলেনি৷ পরে গোয়েন্দার শীর্ষকর্তারা সংকেত উদ্ধার করে বুঝতে পারেন ডানায় লেখা আছে রবি-বুধ-বৃহস্পতি৷ এরপরই ফের পাক-পাঞ্জাব সীমানায় নজরদারি কড়া করা হয়েছে৷

উরিতে হামলার পাল্টা জবাব দিতে প্রস্তুত ভারতীয় সেনাবাহিনীও৷ দেশের নিরাপত্তা বলয়টিকে আরও কঠোর করে তুলতে শনিবার সকালেই ভারতীয় সেনাবাহিনী, নৌসেনা এবং বায়ুসেনা প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷ সাম্প্রতিক সময়ে দেশে যে যুদ্ধ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে সেই বিষয়েও আলোচনা হয় বলে জানা গিয়েছে৷

এর পাশাপাশি গতকাল বিভিন্নভাবে রটে গিয়েছিল পাক অধিকৃত কাশ্মীরে রাশিয়ার সেনা জওয়ানরা পাকিস্তানের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে সামরিক মহড়া দিচ্ছে। এই বিষয়টি নিয়ে তীব্র চাপানউতোর সৃষ্টি হয়৷ খবর প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই আশঙ্কা প্রকাশ করে ভারত। তবে রাশিয়ার পক্ষ থেকে এক বিবৃতি জারি করে এই খবরের সত্যতা অস্বীকার করা হয়েছে।

অন্যদিকে, আমেরিকায় প্রবাসী ভারতীয়দের একাংশ হোয়াইট হাউসে পিটিশন দিয়ে পাকিস্তানকে সন্ত্রাস মদতকারী দেশ হিসাবে ঘোষণা করার দাবি তুলেছেন৷ একইসঙ্গে পাকিস্তানকে আর্থিক অবরোধের হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইউরোপিয়ন ইউনিয়ন৷ নিউ ইয়র্কে ভারতের বিরোধিতা করেও পাক প্রধানমন্ত্রী খালি হাতে ফিরছেন বলে নওয়াজকে খোঁচা দিয়েছে বিদেশমন্ত্রক৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে