BREAKING NEWS

৩ বৈশাখ  ১৪২৮  শনিবার ১৭ এপ্রিল ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘ক্ষমতার পিছনে ছুটিনি,’ তামিলনাড়ু ভোটের আগেই রাজনীতি ছাড়লেন জয়ললিতা ঘনিষ্ঠ শশীকলা

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: March 4, 2021 8:51 am|    Updated: March 4, 2021 1:59 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নির্বাচনের বাকি মাত্র একমাস। তার আগেই রাজনীতি থেকে অবসর নিলেন তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রয়াত জয়ললিতার (Jayalalithaa) একসময়ের ছায়াসঙ্গী ভিকে শশীকলা (VK Sasikala)। ৬৬ কোটি টাকা দুর্নীতির অভিযোগে গত চার বছর বেঙ্গালুরুর (Bengaluru) জেলে বন্দি ছিলেন তিনি। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছিলেন। তারপরই বুধবার রাতে এক বিবৃতিতে এই সিদ্ধান্তের কথা জানান শশীকলা। ফলে ভোটের আগেই দক্ষিণের এই রাজ্যে শুরু হয়েছে তীব্র চাপানউতোর।

দীর্ঘদিন তামিল রাজনীতিতে যুক্ত ছিলেন। জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর আসন্ন নির্বাচনে তাঁর দল এআইএডিএমকে-র অন্যতম প্রধান মুখ হওয়ার কথা ছিল শশীকলারই। এমনকী মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থীও হতে পারতেন। কিন্তু তার আগেই রাজনীতি থেকে অবসরের এই ঘোষণা। বিবৃতিতে শশীকলা বলেছেন, “জয়ললিতা বেঁচে থাকতেও আমি কখনও ক্ষমতা বা কুর্সির পিছনে ছুটিনি। তিনি যখন বেঁচে নেই, সেই কাজ এখনও করব না। তামিলনাড়ুতে এআইএডিএমকে-র সোনালী সময় যাতে বজায় থাকে, সেজন্য আমি রাজনীতি থেকে দূরে থাকব। আমি ভগবান এবং বোন জয়ার কাছে এআইএডিএমকে-র জয়ের জন্য প্রার্থনা করব। পাশাপাশি দলের সমস্ত কর্মীকে একজোট হয়ে কাজ করতে বলব, যাতে DMK-কে হারানো যায়। জয়ললিতার ঐতিহ্যকে বজায় রাখতে পার্টির সদস্যদের একসঙ্গে কাজ করতে হবে।”

[আরও পড়ুন: রক্ষকই ভক্ষক? নগ্ন হয়ে হস্টেলের মহিলাদের নাচতে বাধ্য করল পুলিশকর্মীরা!]

যদিও শশীকলার এই অবসর ঘোষণায় অনেকেই বিজেপির হাত দেখছেন। সেই অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়েছেন এআইএডিএমকে-র টিটিভি দিনাকরণ। পাশাপাশি জানিয়েছেন, খুব শীঘ্রই জোটের ঘোষণা করার পাশাপাশি প্রার্থীতালিকাও জানিয়ে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিবিহীন সম্পত্তি রাখার অপরাধে চার বছরের কারাদণ্ডের সাজা পেয়েছিলেন শশীকলা। দলীয় কোন্দলের জেরেই মূলত শশীকলার কীর্তিকাহিনী প্রকাশ্যে আসে।পরবর্তীতে আদালতের রায়ে বেঙ্গালুরুর পারাপ্পানা আগ্রাহার জেলে যেতে হয় শশীকলাকে। এছাড়া আদালত রায়ে জানায়, ৬ বছর কোনও নির্বাচনে দাঁড়াতে পারবেন না তিনি। রাজনৈতিক মহলের মতে, আসন্ন নির্বাচনে দলের সুবিধা করে দিতেই এই সিদ্ধান্ত শশীকলার। কারণ থেবার সম্প্রদায়ের মধ্যে তিনি খুবই জনপ্রিয়। এদিকে, নির্বাচনে তাঁকে প্রার্থী না করলে ওই ভোটব্যাংক বিরোধীদের দিকে ঝুঁকতে পারত। আর তাই রাজনীতি থেকেই অবসর জয়ললিতার একসময়ের ছায়াসঙ্গীর।

[আরও পড়ুন: যুবতীর সঙ্গে আপত্তিকর ভিডিও ফাঁস, ইস্তফা দিলেন বিজেপি শাসিত কর্ণাটকের মন্ত্রী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement