৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পরিযায়ী শ্রমিক ও পর্যটকদের ঘরে ফেরাতে ছাড়পত্র দিল কেন্দ্র, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে রাজ্য

Published by: Paramita Paul |    Posted: April 29, 2020 7:23 pm|    Updated: April 29, 2020 7:46 pm

An Images

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: দ্বিতীয়দফা লকডাউনের মেয়াদ ফুরোতে আর চারদিন বাকি। তার আগেই ভিনরাজ্যে আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিক, পড়ুয়া, পর্যটক ও তীর্থযাত্রীদের শর্তসাপেক্ষে বাড়ি ফেরার অনুমতি দিল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। বুধবার সেই মর্মে নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্র। তবে ঘরে ফেরার প্রক্রিয়া সম্পূর্ণভাবে সংশ্লিষ্ট রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের অনুমতির উপরই নির্ভরশীল বলেও জানানো হয়েছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, প্রথম দফার লকডাউনের সময় থেকেই সবচেয়ে বেশি বিপাকে পড়েছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। বাড়ি ফিরতে চেয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আন্দোলন করেছেন তাঁরা। তার জেরে কেন্দ্রের উপর চাপ বাড়ছিল। আর তাই খানিকটা ছাড় দিল কেন্দ্র।

করোনার হানা রুখতে লকডাউনের পথে হেঁটেছে কেন্দ্র। যে যেখানে ছিলেন গত এক মাস যাবৎ সেখানেই আটকে রয়েছেনষ কেন্দ্র-রাজ্যের মিলিত প্রয়াসে তাঁদের জন্য অন্ন-বাসস্থানের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কোথাও কোথাও আবার পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজেও লাগানো হয়েছে। কিন্তু এমন সংকট পরিস্থিতিতে কি আর মন মানে? পরিবাবের জন্য মন উচাটন হলেই হেঁটে, সাইকেল চালিয়ে কিংবা সাঁতরে বাড়ির ফেরার চেষ্টা করছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। আবার ভিন রাজ্যে আটকে পড়া পড়ুয়া, তীর্থযাত্রী, পর্যটকদের পকেটে টান পড়েছে। কিন্তু ঘরে যে ফিরবেন, তার উপায় নেই। আন্তঃরাজ্য যাতায়াতের উপর যে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে।

[আরও পড়ুন : বাড়ি ফিরতে চেয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের বিক্ষোভ, থামাতে গিয়ে তেলেঙ্গানায় আক্রান্ত পুলিশকর্মী]

এদিন ভিনরাজ্যে আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিক, পড়ুয়া, পর্যটক ও তীর্থযাত্রীদের বাড়ি ফেরাতে উদ্যোগ নিল কেন্দ্র। বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়েছে, সড়কপথে ভিনরাজ্যে আটকে থাকা মানুষজন নিজের ঘরে ফিরতে পারবেন। কিন্তু তার জন্য বেশকিছু শর্তারোপ করেছে কেন্দ্র। যেমন-

  • পরিযায়ী শ্রমিক, পড়ুয়া, পর্যটক ও তীর্থযাত্রীদের শারীরিক পরীক্ষা করা হবে। তাঁদের শরীরে করোনা উপসর্গ না থাকলে তবেই আন্তঃরাজ্য যাতায়াতে ছাড় পাবেন।
  • তাঁরা যে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল আটকে রয়েছেন সেই প্রশাসন ও যে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ফিরবেন সেই প্রশাসন, সংশ্লিষ্ট দুই রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলকে এ বিষয় রাজি থাকতে হবে।
  • যে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের উপর দিয়ে তাঁরা ফিরবেন, সেই অঞ্চলের প্রশাসনকেও রাজি থাকতে হবে।
  • আটকে থাকা পরিযায়ী শ্রমিক, পড়ুয়া, পর্যটক ও তীর্থযাত্রীদের ফেরাতে নোডাল কমিটি তৈরি্ করতে হবে। সেই কমিটি সকলের নাম রেজিস্টার করবে। এবং গোটা প্রক্রিয়ার উপর নজর রাখবে।
  • ফেরার পর সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

[চূড়ান্ত গাফিলতি! কোয়ারেন্টাইন সেন্টার থেকে পালালেন করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement