BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

সোশ্যাল চ্যাটে অশ্লীল ছবি দিয়ে ধর্ষণের ইচ্ছাপ্রকাশ, ‘গুণধর’ স্কুলছাত্রদের চিহ্নিত করল পুলিশ

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 5, 2020 12:38 pm|    Updated: May 5, 2020 12:38 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির নামজাদা কয়েকটি স্কুলের পড়ুয়াদের ইনস্টাগ্রাম চ্যাটে অশ্লীল কাণ্ডকারখানা অবাক করেছে গোটা দেশকে। রীতিমতো ছিছিক্কার পড়ে গিয়েছে চতুর্দিকে। ঘটনায় ইতিমধ্যেই এক নাবালককে ধরেছে দিল্লি পুলিশ। সেই সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় অশালীন মেসেজ আদান-প্রদানে যে ২১ জন জড়িত, তাদের প্রায় সকলকেই চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রত্যেককে জেরা করা হবে জানানো হয়েছে।

ইনস্টাগ্রামে স্কুলের ছাত্রদের গ্রুপ। যার পোশাকি নাম #BoysLockerRoom। সেখানেই অশ্লীল মেসেজের ছড়াছড়ি। অনুমতি ছাড়াই বান্ধবীদের ছবি পোস্ট করা, আর তা নিয়ে নানান অশ্লীল আলোচনা। এমনকী, ধর্ষণকে আইনি করে দেওয়ারও দাবি জানিয়েছে কেউ কেউ। যাতে স্কুলের বান্ধবীদের ধর্ষণ করতে পারে তারা। ইনস্টগ্রামের একটি গ্রুপের চ্যাটের কয়েকটি স্ক্রিনশট প্রকাশ্যে আসতেই সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ঢিঁঢিঁ পড়ে যায়। খবর ছড়িয়ে পড়ার পরই গ্রুপটিকে ব্লক করে দেওয়া হয়। এরপরই ওই গ্রুপের সদস্যদের গ্রেপ্তারির দাবি জানিয়ে ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষ ও দিল্লি পুলিশকে নোটিস দিয়েছিল দিল্লি মহিলা কমিশন। কমিশনের চেয়্যারম্যান স্বাতী মালওয়ালি জানান, দিল্লি পুলিশ ও ইনস্টাগ্রাম কর্তৃপক্ষকে তাঁরা নোটিস পাঠিয়েছেন। দিল্লি পুলিশ ওই গ্রুপের বিস্তারিত তথ্য চেয়ে পাঠিয়েছিল। এরপর মঙ্গলবার দিল্লি পুলিশের সাইবার সেলের তরফে জানানো হল, এই কাণ্ডে প্রায় প্রত্যেককেই চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ধর্মীয় রীতি ও লোকাচার মেনে রাজপথেই রথযাত্রা, মঙ্গলবার নির্মাণ শুরু]

এই সাইবার সেল জানায়, ২১ জন পড়ুয়া নিয়ে ইনস্টাগ্রামের ওই গ্রুপটি তৈরি। একটি স্কুলের ছাত্রকে ইতিমধ্যেই ধরা হয়েছে। তার মোবাইল ফোন খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বাকিদেরও প্রায় সবারই নাম-ঠিকানা জানা গিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৬৫, ৪৭১, ৪৬৯, ৫০৯ এবং আইটি আইনের ৬৭ ও ৬৭এ ধারায় এফআইআরের নির্দেশ দিয়েছেন দিল্লি পুলিশের এক শীর্ষ আধিকারিক। ইতিমধ্যেই দক্ষিণ দিল্লির একটি বেসরকারি স্কুলের তরফে এই ঘটনার বিরুদ্ধে সাকেত থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। জানা গিয়েছে, যারাই ওই গ্রুপের তথ্য প্রকাশ্যে আনতে চাইত, তাদের নানাভাবে হুমকি দিত গ্রুপের সদস্যরা।

[আরও পড়ুন: ‘অর্থনীতির হাল ফেরাতে জরুরি আর্থিক প্যাকেজের ঘোষণা’, রাহুলকে পরামর্শ নোবেলজয়ী অভিজিতের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement