BREAKING NEWS

০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  শনিবার ২৫ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিজ্ঞাপনে লাভ জেহাদের ‘প্রচার’, রোষের মুখে সার্ফ এক্সেল

Published by: Sulaya Singha |    Posted: March 11, 2019 11:44 am|    Updated: March 11, 2019 12:31 pm

Surf excel face flak for ad

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিনকয়েক পর হোলি। রঙের উৎসবে মেতে উঠবে গোটা দেশ। আর সেই হোলির কথা মাথায় রেখেই একটি বিজ্ঞাপন তৈরি করেছিল সার্ফ এক্সেল। টিভির পর্দায় চোখ রাখলেই সে বিজ্ঞাপন দেখা যাচ্ছে। কিন্তু সম্প্রতি জনরোষের মুখে পড়েছে বিজ্ঞাপনটির বিষয়বস্তু। নেটদুনিয়ায় কট্টরপন্থীদের কড়া সমালোচনার শিকার সার্ফ এক্সেল। দাবি, এই বিজ্ঞাপন লাভ জেহাদেরই প্রচার করছে।

ডিটার্জেন্ট প্রস্তুতকারী সংস্থাটির নতুন বিজ্ঞাপনটি তৈরি শিশুদের নিয়ে। যেখানে এক হিন্দু কিশোরী তার মুসলিম বন্ধুকে হোলির রং থেকে বাঁচিয়ে মসজিদ পর্যন্ত পৌঁছে দিচ্ছে। মুসলিম কিশোর যাচ্ছে নমাজ পড়তে। আর বান্ধবী জানিয়ে রাখছে, নমাজ পড়ে বেরলেই তাকেও হোলির রঙে রাঙিয়ে দেওয়া হবে। হোলির মতো রঙিন উৎসবে সম্প্রীতির বার্তা দিতেই গত ২৭ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পায় বিজ্ঞাপনটি। যার ট্যাগ লাইনে বলা হয়েছে, রং যদি বন্ধুত্বের পথ প্রশস্ত করে, তবে রং ভাল। মুক্তির ক’দিনের মধ্যেই ইউটিউবে আট লক্ষেরও বেশি মানুষ তা দেখে ফেলেছেন। তবে বিজ্ঞাপনটি বেশি করে নজরে আসতেই বিপাকে সংস্থা। নেটদুনিয়ায় এর বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে হিন্দু কট্টরপন্থীরা। অনেকের অভিযোগ, এমন বিজ্ঞাপন বাচ্চাদের মধ্যেও লাভ জেহাদের মানসিকতা ছড়িয়ে দিচ্ছে। শুধু তাই নয়, এখানে হোলির থেকে নমাজ পড়াকেই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

[বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রার্থীকেই জানাতে হবে ক্রিমিনাল রেকর্ড, নির্দেশ কমিশনের]

টুইটারে boycottSurfexcel হ্যাশট্যাগ দিয়ে একের পর এক টুইট করে চলেছে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা। প্রত্যেকেরই দাবি, বিজ্ঞাপনে হিন্দুত্বকে অসম্মান করা হয়েছে। কারণ এখানে দোলের রংকে ‘দাগ’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। যা একেবারেই মেনে নেওয়া যায় না। বিজ্ঞাপনটি হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত করেছে বলেও অভিযোগ তোলা হয়েছে। তবে শুধু হিন্দুরাই নন, মুসলিম কট্টরপন্থীরাও বিজ্ঞাপনটির তীব্র নিন্দা করেছেন। তাঁদের অভিযোগ, এখানে মুসলিম কিশোরকে অপমান করা হয়েছে। কারণ বিজ্ঞাপনটিতে দেখানো হয়েছে, কিশোরকে মসজিদে যেতে এক হিন্দু কিশোরীর সাহায্য নিতে হয়েছে।

tweet

তবে হাজার সমালোচনা হলেও অনেকেই বিজ্ঞাপনের নেপথ্য ভাবনাকে কুর্নিশ জানিয়েছেন। কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় নিরুপম টুইট করেন, “যাঁরা বিজ্ঞাপন নিয়ে আপত্তি জানাচ্ছেন, তাঁরা আসলে ভারতীয় সংস্কৃতিরই পরিপন্থী।” একই সুর জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির মুখে। তথাকথিত ‘ভক্ত’দের একহাত নিয়ে বিজ্ঞাপনের প্রশংসা করেছেন তিনি। বলেন, “আমার একটা ভাল পরামর্শ আছে। সার্ফ এক্সেল দিয়ে ভক্তদের ভালভাবে ধোয়া হোক। কারণ এই ডিটার্জেন্ট ভাল দাগ পরিষ্কার করে।”

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে