BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

অমানবিক! হাসপাতালের সিঁড়িতে শুয়ে আর্তনাদ করোনা সন্দেহে ভরতি হতে আসা রোগীর

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 19, 2020 12:49 pm|    Updated: May 19, 2020 12:49 pm

Suspected Covid-19 partient left outside JK hospital, viral in social media

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অমানবিক! জম্মু-কাশ্মীরের (Jammu and Kashmir) হাসপাতালের বাইরে সিঁড়িতে শুয়ে করোনা সন্দেহে হাসপাতালে আসা এক রোগী। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল সেই করুণ দৃশ্য। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সমালোচনায় নেটিজেনরা।

করোনার আবহে ধুয়ে মুছে সাফ মানবিকতা। মারণ ভাইরাসের জেরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে শিকেয় উঠেছে মানবিকবোধগুলিও। সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার আগে একে অপরের দিয়ে ভ্রুকুটি-সহ সন্দেহপ্রবণ দৃষ্টিতে তাকানোই যেন স্বাভাবিক হয়ে উঠছে। জম্মু-কাশ্মীরের সিডি (Chest Diseases) হাসপাতালের বাইরে ধরা পড়ল সেই অমানবিক চিত্র। করোনা সন্দেহে হাসপাতালে ভরতি হতে আসা এক রোগীর সঙ্গে সিঁড়িতেই বসে রয়েছেন একজন ব্যক্তি। শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালে ভরতি হতে গেলেও সেই মহিলাকে ভরতি নেওয়া হয়নি। অগত্যা হাসপাতালের বাইরের সিঁড়িতেই শুয়ে পড়েন সেই মহিলা। অসহায় অবস্থায় মহিলাকে যারপরনাই ভাবে সামলে রাখার চেষ্টা করছেন তাঁর সঙ্গে থাকা ব্যক্তি। তবে কেন এই মহিলাকে হাসপাতালে ভরতি নেওয়া হয়নি তাই নিয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে উঠছে প্রশ্ন। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি ভাইরাল হওয়ায় নিন্দার ঝড় বয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। জানা যায় জম্মু-কাশ্মীরের শ্রী মহারাজ হরি সিং হাসপাতালে অসুস্থতা নিয়ে ভরতি হতে যান ওই মহিলা। সেখান থেকে অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করে মহিলাকে সিডি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু রোগীকে হাসপাতালের দোড়গোড়া অবধি পৌছে দেওয়া তো দূরঅস্ত। গাড়ি থেকে রোগীকে নামিয়ে দিতে পারলেই যেন স্বস্তি পান অ্যাম্বুলেন্স চালক। কোনও মতে হাসপাতালের সিঁড়ির কাছে রোগীকে পৌছে দিয়েই স্পিডোমিটারে গতি বাড়িয়ে পালায় অ্যাম্বুল্যান্স চালক।

[আরও পড়ুন:দলে সুযোগ দেওয়ার জন্য ঘুষ চেয়েছিলেন এক আধিকারিক! বিস্ফোরক বিরাট কোহলি]

শ্রীনগরের এক স্থানীয় মুজফ্ফর আহমেদের কথায়, “এমতাবস্থায় যে সহানুভূতি-মানবিকতা রোগীদের দেখানো প্রয়োজন তার কোনওটাই করা হচ্ছে না। পরিবর্তে খারাপ ব্যবহার করা হচ্ছে। যা একেবারেই কাম্য নয়। এভাবে একজন আক্রান্তকে অবহেলা করার অপরাধে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষর বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।” সিডি হাসপাতালের প্রধান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন। ঘটনার সপক্ষে তাঁর যুক্তি, “একদিনে প্রায় ৯ জজন আক্রান্তকে SMHS হাসপাতাল থেকে এখানে স্থানান্তরিত করা হয়। তবে যেহেতু এই মহিলা করোনা আক্রান্ত কিনা তা জানা যায়নি। তাই সংক্রমণে ভয়ে ওই মহিলাকে ভরতি নেওয়া হয়নি।” তবে ভবিষ্যতে যাতে এই ধরণের ঘটনা না ঘটে তার আশ্বাস দিয়েছেন হাসপাতালের প্রধান।

[আরও পড়ুন:করোনা পজিটিভ ২৮ জন কর্মী, সিল করা হল Zee News-এর অফিস ও নিউজরুম]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে