BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৯  সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

সহ্যের সীমা ছাড়িয়েছে! কাশ্মীরে ফের জঙ্গি নিকেশে নামছে সেনা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 17, 2018 3:38 pm|    Updated: June 17, 2018 7:13 pm

suspension of anti-terrorism operations in Jammu and Kashmir, announced Home Minister Rajnath Singh

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে জম্মু-কাশ্মীরে শর্ত সাপেক্ষে জঙ্গি দমন অভিযান বন্ধ রেখেছিল কেন্দ্র। যার সম্পূর্ণ সুযোগ নিয়েছে উপত্যকার বুকে ঘাপটি মেরে থাকা সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ও বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনগুলি। তবে এবার তাদের সুখের দিনে ইতি পড়তে চলেছে। আজ থেকেই জম্মু-কাশ্মীরে পুনরায় জঙ্গি দমন অভিযান শুরু করতে চলেছে সেনা। মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় উঠে যাচ্ছে আগের জারি করা স্থগিতাদেশের নির্দেশ৷ বাড়ছে না মেয়াদের সময়সীমা৷ নীতি আয়োগের বৈঠকের আবহেই এই ঘোষণাই করলেন রাজনাথ সিং। অর্থাৎ, উপত্যকায় মশার লার্ভার মতো বেড়ে ওঠা জঙ্গিদের খতম করতে কোমর বেঁধে নামছে কেন্দ্র৷ সরকারি ভাবে রবিবার তা ঘোষণা করলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী৷

[ফাদার্স ডে-তে বাবাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বিশেষ ভিডিও পোস্ট করলেন সুনীল]

একমাস আগে, ১৭ মে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল, একমাস শর্তসাপেক্ষে উপত্যকায় বন্ধ থাকবে জঙ্গিদমন অভিযান৷ যাকে স্বাগত জানিয়েছিলেন, জম্মু-কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি৷ এই উদ্যোগ, উপত্যকার মানুষের মধ্যে শান্তির বাতাবরণ তৈরি করবে আশা করেছিল কেন্দ্র ও রাজ্য৷ তবে বরাবরের চরিত্র বজায় রেখে এই ভাল উদ্যোগেও জল ঢেলে দিয়েছে পাকিস্তান৷ রমজানের মধ্যেই জম্মু-কাশ্মীরকে সবচেয়ে বেশি রক্তাক্ত করেছে তারা৷ একদিকে সীমান্তে ক্রমাগত সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করে গিয়েছে পাক রেঞ্জার্স৷ পাশাপাশি, আইএসআই মদত দিয়ে গিয়েছে উপত্যকার মধ্যেকার জঙ্গি সংগঠন ও বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনগুলিকে৷ হিসাব বলছে, গত একমাসে উপত্যকায় একশো শতাংশ বেড়ে গিয়েছে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ৷ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ১৯ এপ্রিল থেকে ১৬ মে পর্যন্ত কাশ্মীরের বুকে ২৫টি জঙ্গি হানার ঘটনা ঘটেছিল৷ তুলনায়, ১৭ মে থেকে ১৩ জুন পর্যন্ত সংখ্যাটা ছাড়িয়ে গিয়েছে ৬৬৷

[মমতা দিল্লি যেতেই নাটকীয় মোড় রাজনীতিতে, তৃণমূল নেত্রীর পাশে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী]

এই গুলির লড়াইয়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছেন নিয়ন্ত্রণ রেখার পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলির ভারতীয় নাগরিকরা৷ বিগত কয়েকদিনে প্রাণ গিয়েছে অনেক নিরীহ মানুষের৷ মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে হয়েছে মাত্র ছ’মাসের এক শিশুকে৷ অতর্কিতে সেনার একাধিক ক্যাম্পে হয়েছে জঙ্গি হানা৷ গত সপ্তাহে প্রায় একই সঙ্গে ঘটেছে দুটি মর্মান্তিক ঘটনা৷ অপহরণ করে রাষ্ট্রীয় রাইফেলের জওয়ান ঔরঙ্গজেবকে হত্যা করেছে হিজবুল জঙ্গিরা৷ একই ভাবে, গুলিতে ঝাঁঝরা করে দেওয়া হয়েছে ‘রাইজিং কাশ্মীর’ সংবাদপত্রের সম্পাদক সুজাত বুখারিকে। যা নিয়ে ইতিমধ্যে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে বিভিন্ন মহলে। আর এই ক্ষোভকেই কাজে লাগাতে চাইছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। মনে করা হচ্ছে, অমরনাথ যাত্রা শুরুর আগেই উপত্যকায় জঙ্গিদের দাপট কমাতে চাইছে কেন্দ্র। ফলে মুখ বুজে সহ্য না করে এবার পালটা উত্তর দেওয়ার রাস্তাই বেছে নেওয়া হয়েছে। ঠিক সেই কারণেই ইতিমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে ঘোষণা করা হয়েছে, যাবতীয় প্রস্তুতি নেওয়ার৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে