২১  আষাঢ়  ১৪২৯  বুধবার ৬ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

চিকিৎসকদের মুখে থুতু! কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ‘অভব্যতা’ নিজামুদ্দিনের জমায়েতকারীদের

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 2, 2020 12:22 pm|    Updated: April 2, 2020 4:21 pm

Tablighi Jamaat attendees misbehave with staffers

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির নিজামুদ্দিনের সমাবেশে থাকা অনেকেই করোনা আক্রান্ত। সংক্রমণের আশঙ্কাও রয়েছে যথেষ্ট। তাই বর্তমানে তাঁদের বেশ কয়েকজনকে তুঘলকাবাদের রেলের আবাসনে তৈরি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রাখা হয়েছে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় অভব্যতা করার অভিযোগ উঠল নিজামুদ্দিনের জমায়েতকারীদের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের লক্ষ্য করে থুতু ছোঁড়ে তারা। রোগ সংক্রমণের আশঙ্কায় কাঁটা স্বাস্থ্যকর্মীরা। ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকদের কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন তাঁরা। নিরাপত্তা বাড়ানো হবে বলেই আশ্বাস সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের। 

দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তিত বিভিন্ন মহল। সেই পরিস্থিতিতে জটিলতা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে দিল্লির নিজামুদ্দিন মসজিদের জমায়েত। বিভিন্ন প্রান্তের মানুষের জমায়েতে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা যে বেড়েছে তা নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। এই অবস্থায় আবার জমায়েতে থাকা ব্যক্তিদের অভব্যতা আরও চিন্তা বাড়াচ্ছে। অভিযোগ, কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে জমায়েতকারীদের বাসে করে আনা হয়। সেই সময় তারা বাসের বাইরে থুতু ফেলেন। বারবার বারণ করা সত্ত্বেও লাভ কিছুই হয়নি। কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে ঢোকার পরেও একইরকম আচরণ করে তারা। চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের মুখেও থুতু দেয়। বিশেষজ্ঞরা বারবার বলছেন, হাঁচি-কাশির সময় মুখ থেকে বেরনো থুতুর মাধ্যমে ছড়াতে পারে মারণ ভাইরাস। তাই তারপরেও এ ধরনের আচরণে মারণ ভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা অনেক বেশি বলেই মনে করা হচ্ছে। এই কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের আশেপাশেও রয়েছে বসতি এলাকা। তাই রোগ সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন সকলেই।

[আরও পড়ুন: নিজামুদ্দিন-সহ দেশে করোনার ‘হটস্পট’ মোট ১০টি! জানুন কোথায় কোথায়]

নর্দান রেলওয়ের মুখপাত্র দীপক কুমার বলেন, “কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে দেওয়া খাবারদাবার খেতে চাইছেন না তারা। চিকিৎসকদের কোনও কথাই শুনছেন না। গৃহবন্দি অবস্থাতেও থাকতে চাইছেন না। পরিবর্তে অশান্তি তৈরি করছেন। স্বাস্থ্যকর্মী এবং চিকিৎসকদের লক্ষ্য করে থুতু ছুঁড়ছেন। আমরা জেলাশাসককে গোটা ঘটনাটি জানিয়েছি। নিরাপত্তা বাড়ানোর কথা বলেছি।”  লাল নায়ক জয়প্রকাশ নারায়ণ হাসপাতালেও কোয়ারেন্টাইনে থাকা জমায়েতকারীরা একইরকম ব্যবহার করছে বলেও অভিযোগ ডিরেক্টরের।

নতুন করে যাতে কোনও অশান্তি না হয় সেদিকে অবশ্য খেয়াল রেখেছে দিল্লি পুলিশ। তুঘলকাবাদের কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়েছে। মোতায়েন করা হয়েছে ৪ জন পুলিশ কনস্টেবল এবং ৬ জন সিআরপিএফ জওয়ান।  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে