Advertisement
Advertisement
Police

জেরা করতে ডেকে বেধড়ক মারে মৃত্যু যুবকের, তামিলনাড়ুতে ফের কাঠগড়ায় পুলিশ

সম্প্রতি তামিলনাড়ুতেই পুলিশি হেফাজতে বাবা-ছেলের মৃত্যু হয়।

Tamil Nadu: Auto driver dies in hospital after police brutality in custody

ছবি : প্রতীকী

Published by: Paramita Paul
  • Posted:June 28, 2020 2:50 pm
  • Updated:June 28, 2020 2:50 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুলিশি অত্যাচারে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর প্রতিবাদে উত্তাল হয়েছে আমেরিকা। শেতাঙ্গ পুলিশের নির্মম অত্যাচারের ছবি নেটদুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। সেই ঘটনার রেশ কাটার আগেই তামিলনাড়ুর জেলে পুলিশি অত্যাচারের শিকার হয়েছেন বাবা-ছেলে। মৃত্যু হয়েছে তাঁদের। এবার ফের পুলিশের অত্যাচারে এক অটো চালকের মৃত্যুর খবরে বিতর্ক দানা বেঁধেছে। কাঠগড়ায় সেই তামিলনাড়ুর (Tamilnadu) পুলিশ।

অভিযোগ, জমির মালিকানা নিয়ে মামলা চলছিল। সেই সূত্রে জেরার করার জন্য অটো চালক এন কুমারসেনকে পুলিশ থানায় ডেকে পাঠায়। সেখানেই তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয় অভিযোগ। গত ১৫ দিন ধরে হাসপাতালে ভরতি থাকার পর কুমারসেনের মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের অভিয়োগ, থানা থেকে ফিরে আসার পর সকলের সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছিলেন কুমারসেন। পরের দিন থেকে প্রচণ্ড বমি শুরু হয়। একইসঙ্গে অসহ্য পেটব্যথা। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে স্থানীয় প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে থেকে তাঁকে সরকারি হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ১৫দিন পর সেখানেই মৃত্যু হয়।

Advertisement

[আরও পড়ুন : ভারতে বড়সড় নাশকতার ছক, কাশ্মীর সীমান্তে অনুপ্রবেশের অপেক্ষায় ৪০০ পাকিস্তানি জঙ্গি]

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, কুমারসেনের কিডনি (Kidney) ও যকৃত মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। পুলিশের বেধড়ক মারধরের জেরেই এই আঘাত লেগেছে বলে অভিযোগ পরিবারের। তাঁদের দাবি মৃত্যুর আগে কুমারসেন জানিয়েছিলেন, থানায় কী হয়েছে, সে সম্পর্কে বাইরে মুখ খুলতে বারণ করেছিলেন অভিযুক্ত পুলিশ কর্মীরা। এমনকী, পরিবারের কাউকে কিছু জানালে কুমারসেনের বাবার ক্ষতি করারও হুমকি দিয়েছিলেন ওই পুলিশ কর্মীরা। কুমারসেনের মৃত্যুর পর তাঁর আত্মীয়রা থানার বাইরে বিক্ষোভ দেখায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে অভিযুক্ত অভিযুক্ত সাব-ইন্সপেক্টর চন্দ্রশেখর ও কনস্টেবল কুমারের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে তদন্ত শুরু হয়েছে।

Advertisement

[আরও পড়ুন : করোনা আবহেই অযোধ্যায় যোগী, খতিয়ে দেখবেন রাম মন্দির নির্মাণের কাজ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ