১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্কুল শেষ। কচিকাঁচারা বাড়ির পথে পাড়ি দিয়েছে। স্কুল চত্বরেই চলা অঙ্গনওয়াড়িও ছুটি হয়ে গিয়েছে। বাড়ি যাওয়ার জন্য ব্যস্ততা তুঙ্গে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের। কিন্তু এক শিক্ষক এবং অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীর দেখা মিলছে না। দু’জনেই একটি ঘরে বদ্ধ। কী করছেন তাঁরা? বন্ধ দরজা সামান্য ফাঁক করে চোখ রাখতেই তাজ্জব হয়ে গেলেন সকলেই। ঘরের মধ্যে তখন উদ্দাম যৌনতায় মত্ত দু’জনেই। লজ্জাজনক এই ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর নামাক্কলের উদুপ্পমের সরকারি স্কুলে। 

[আরও পড়ুন: গৃহবন্দি অন্ধ্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু, জগন সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে টিডিপি]

তামিলনাড়ুর নামাক্কলের উদুপ্পমের সরকারি স্কুলের শিক্ষক তিনি। ওই স্কুলেই চলে অঙ্গনওয়াড়ি। গত কয়েক মাস ধরে ওই অঙ্গনওয়াড়ির এক কর্মীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় অভিযুক্ত শিক্ষকের। সেই সুবাদে প্রায়শই স্কুলে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যেত তাদের। স্কুলেরই কিছু ছাত্র হাতেনাতেও তাদের বেশ কয়েকবার ধরে ফেলেছে। তার জেরেই মুখে মুখে ছড়িয়ে পড়েছে দু’জনের প্রেমকাহিনি। বিষয়টি জানাজানি হয়ে গিয়েছে ছাত্রদের বাবা-মার কাছেও। তারই মাঝে মঙ্গলবার ছুটির সময় দু’জনেই নিখোঁজ হয়ে যায়। প্রত্যেকেই ভাবেন দু’জনে হয়তো একসঙ্গে রয়েছেন। যেমন ভাবা, তেমনই কাজ।  স্কুলেরই একটি বন্ধ ঘরের দরজা খুলে চক্ষু চড়কগাছ স্থানীয়দের। তাঁরা দেখেন ঘরের মধ্যে উদ্দাম যৌনতায় মত্ত শিক্ষক এবং অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী। আপত্তিকর অবস্থাতেই গ্রামবাসীরা তাঁদের ধরে ফেলে। 

[আরও পড়ুন: ট্রাফিক আইন ভাঙার শাস্তি, ১ লক্ষ ৪০ হাজার টাকা জরিমানা ট্রাক মালিককে]

দরজা ঠেলে সোজা ওই ঘরে ঢুকে পড়েন স্থানীয়রা। আপত্তিকর অবস্থায় তাঁদের দেখতে পেয়েই রেগে যান গ্রামবাসীরা। শিক্ষককে বেধড়ক মারধর করা হয়। মহিলা অবশ্য ততক্ষণে এলাকা ছেড়েছেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বিশাল পুলিশবাহিনী। শিক্ষককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে প্রধানশিক্ষক। এছাড়া ওই অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থার ইঙ্গিত দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং