BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

টাটা সাম্রাজ্যের নতুন চেয়ারম্যান, কে এই নটরাজন চন্দ্রশেখরণ?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 13, 2017 8:43 am|    Updated: January 13, 2017 8:48 am

Tata Sons appoints N Chandrasekaran as Chairman

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিরুচিরাপল্লির রিজিওনাল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ (এনআইটি) থেকে এমসিএ পড়া শেষ করেই টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিসেস (টিসিএস)-এ যোগ দিয়েছিলেন তিনি৷ সেটা ১৯৮৭ সাল৷ তিন দশক পর তাঁর নেতৃত্বেই আস্থা দেখাল টাটা সনস৷ তিনি নটরাজন চন্দ্রশেখরণ৷ প্রায় ১০ হাজার কোটি ডলারের টাটা সাম্রাজ্যের এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন তিনি৷ বৃহস্পতিবার সংস্থার বোর্ড মিটিংয়ে ৫৪ বছর বয়সি চন্দ্রশেখরনের হাতে নেতৃত্বভার তুলে দেওয়া হয়েছে৷ তিনিই টাটা গোষ্ঠীর প্রথম অ-পার্সি চেয়ারম্যান৷

গত ২৪ অক্টোবর সাইরাস মিস্ত্রিকে টাটা সনস-এর চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷ সেই সময় অন্তর্বর্তীকালীন চেয়াম্যান নির্বাচিত হন রতন টাটা৷ তখনই সংস্থার সর্বোচ্চ পদে নিয়োগের জন্য একটি পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠিত হয়৷ চার মাসের মধ্যে এই কমিটিকে উত্তরসূরী খোঁজার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল৷ কমিটিতে ছিলেন রতন টাটা, বেণু শ্রীনিবাসন, অমিত চন্দ্র এবং দুই বাঙালি রণেন সেন ও লর্ড কুমার ভট্টাচার্য৷ সেই সময় থেকেই সল্ট-টু-সফটওয়ার সংস্থার চেয়ারম্যান পদের জন্য কয়েকটি নাম নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে যায়৷ তাঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য পেপসি কো-র ইন্দ্রা নুয়ি, ভোডাফোনের প্রাক্তন সিইও অরুণ সারিন, টাটা ইণ্টারন্যাশনালের নোয়েল টাটা, টিসিএস-এর সিইও এন চন্দ্রশেখরণ এবং টাটা গোষ্ঠীর ইশাত হুসেন ও বি মুথুরমণ প্রমুখ৷ সবাইকে পিছনে ফেলে অবশ্য চন্দ্রশেখরণই উঠে এলেন শীর্ষ পদে৷ যদিও, এই সংস্থার বর্তমান অস্থির ও বিবদমান সময়ে টাটার অন্দরের কাউকেই চেয়ারম্যান পদে বসানো হবে, আগে থেকেই আন্দাজ করেছিল কর্পোরেট মহল৷ তাঁরা চন্দ্রশেখরণকে অভিনন্দন জানিয়েছেন৷ চন্দ্রশেখরণ বলেন, “তিনি এক বড় দায়িত্ব পেয়েছেন৷ এই কাজে সকলের সমর্থন প্রয়োজন৷”

এদিন টাটা সনসের পক্ষে প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, সংস্থার বোর্ড অফ ডিরেক্টরের বৈঠকে এন চন্দ্রশেখরণকে এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান হিসাবে নিয়োগ করেছে৷ সিলেকশন কমিটির সর্বসম্মত সুপারিশেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে তিনি কার্যভার গ্রহণ করবেন৷ টাটা সনস-এর হিসাবের খাতা বলছে, ২০১৫-’১৬ অর্থবর্ষে ভারতের বৃহত্তম বাণিজ্য সংস্থার টার্নওভার আগের বছরের ১০৮ বিলিয়ন ডলার থেকে নেমে ১০৩ বিলিয়ন ডলারে চলে আসে৷ গত বছরের মার্চের হিসাবে ঋণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৪.৫ বিলিয়ন ডলার৷ যা এক বছর আগে ছিল ২৩.৪ বিলিয়ন ডলার৷ বস্তুত, টাটা গোষ্ঠীর একশোটির বেশি ব্যবসা রয়েছে৷ তবে তথ্যপ্রযুক্তি রফতানি সংস্থা টাটা কনসালট্যান্সি সার্ভিসেস এবং টাটা মোটরস ছাড়া অন্য ক্ষেত্রগুলিতে প্রত্যাশামতো মুনশিয়ানা সাইরাস দেখাতে পারেননি৷ আর সেকারণেই সাইরাসকে সরে যেতে হয়৷

এরপর টানা আড়াই মাস ধরে এক কঠিন সময়ের মধ্যে চলেছে টাটা সংস্থা৷ সংস্হা ও সাইরাসের মধ্যে চরম বাদানুবাদ চলেছে৷ টাটা সনসের ছাতার তলায় থাকা সব সংস্থার ডিরেক্টর পদ থেকে সরানো হয়েছে সাইরাসকে৷ কোনও কোনও ক্ষেত্রে তিনি নিজে পদত্যাগ করেছেন৷ টাটা সনসের ‘এমিরেটাস’ রতন টাটার বিরুদ্ধে আঙুল তুলে সাইরাস বলেছেন, চেয়ারম্যান হিসাবে তাঁর সিদ্ধান্ত গ্রহণের কোনও স্বাধীনতা ছিল না৷ বোর্ডে না থেকেও সব কিছুতেই প্রভাব খাটাতেন রতন টাটা৷ অন্যদিকে, রতন টাটা তাঁর বিরুদ্ধে বিশ্বাসঘাতকতার অভিযোগ তোলেন৷ সব মিলিয়ে সংস্থার মর্যাদায় আঘাত হয়েছে বলে এক সময় হতাশা প্রকাশও করেন রতন টাটা৷

এই কঠিন সময়ে টাটা সনসকে পুরনো মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করার চ্যালেঞ্জ নিয়ে চেয়ারম্যান পদে বসছেন চন্দ্রশেখরণ৷ টিসিএসের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এবং সিওও পদে থাকার পর ২০০৯ সালের ৬ অক্টোবর সংস্থার সিইও হন তিনি৷ টাটা গোষ্ঠীর তরুণতম সিইওদের মধ্যে তিনি অন্যতম৷ তাঁরই নেতৃত্বেই সংস্থা ২০১৫-’১৬ সালে ১৬.৫ বিলিয়ন ডলার মুনাফা করেছে৷ তাঁরই নেতৃত্বে ২০১৫ সালে তথ্যপ্রযুক্তি পরিষেবার ক্ষেত্রে বিশ্বের ‘মোস্ট পাওয়ারফুল ব্র্যান্ড’ হিসাবে উঠেছে টিসিএস৷ বিশ্বের ২৪টি দেশে ছড়ানো টিসিএস ভারতে বেসররকারি ক্ষেত্রে সর্বাধিক নিয়োগকারী সংস্থা৷ ২০১৬-র ২৫ অক্টোবর তাঁকে টাটা সনস বোর্ডের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর হিসাবে নিয়োগ করা হয়৷ বর্তমানে টিসিএসের নতুন সিইও হলেন রাজেশ গোপীনাথ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে