৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘আমাকে মেরে পথের কাঁটা সরাতে চাইছে বিজেপি’, বিস্ফোরক তেজপ্রতাপ

Published by: Bishakha Pal |    Posted: August 23, 2018 12:00 pm|    Updated: August 23, 2018 12:24 pm

Tej Pratap claims armed man clutches his hand

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপি ও আরএসএসের দিকে সরাসরি অভিযোগে আঙুল তুললেন আরজেডি নেতা তেজপ্রতাপ যাদব। বিহারের প্রাক্তন স্বাস্থ্যমন্ত্রী অভিযোগ তুলেছেন, এই দুই দল চাইছে না তিনি রাজনীতিতে থাকুন। সেই কারণে দুনিয়া থেকেই সরিয়ে দিতে চাইছে তাঁকে।

তবে অহেতুক এই অভিযোগ তোলেননি আরজেডির নেতা তেজপ্রতাপ যাদব। তাঁর অভিযোগের ভিত্তি রয়েছে। সম্প্রতি তাঁর উপর হামলা হয়েছিল। প্রাক্তন মন্ত্রীর বক্তব্য, বিজেপি ও আরএসএস মিলিতভাবেই এই হামলা করিয়েছিল। বুধবার ইদের শুভেচ্ছা দিতে মহুয়া গিয়েছিলেন তিনি। সেখানে এক সশস্ত্র ব্যক্তি তাঁর হাত চেপে ধরে বলে অভিযোগ। শত চেষ্টা করেও সেই বাঁধন ছাড়ানো যাচ্ছিল না। তেজপ্রতাপের অভিযোগ, এটি সম্পূর্ণ আরএসএস ও বিজেপির ষড়যন্ত্র। রাজনীতির ময়দান ফাঁকা পাওয়ার জন্য তারা তেজপ্রতাপকে রাস্তা থেকে সরিয়ে দিতে চাইছে।

আমিরশাহীর দেওয়া ৭০০ কোটির সাহায্য নিতে ‘নারাজ’ কেন্দ্র ]

আরজেডি নেতা আরও বলেছেন, “আমি যখন মহুয়া যাচ্ছিলেন একজন সশস্ত্র ব্যক্তি আমারর হাত ধরে। করমর্দনের অছিলাতেই হাত ধরেছিল সেই ব্যক্তি। কিন্তু তারপর আর ছাড়তে চাইছিল না।ন যখন তেজপ্রতাপের দেহরক্ষীরা তাঁকে ছাড়াতে যান, তাঁদের দিকে অস্ত্র তাক করা হয় বলেও অভিযোগ। এই ঘটনার পরই বিজেপি ও আরএসএসের দিকে আঙুল তোলেন তেজপ্রতাপ যাদব। অভিযোগ তোলেন, এই দুই দল তাঁকে খুন করে পথের কাঁটা সরিয়ে দিতে চাইছে।

‘ভারত মাতা কি জয়’ বলে কাশ্মীরে রোষের মুখে ফারুক আবদুল্লা ]

ওই ব্যক্তিকে শনাক্ত করেন তেজপ্রতাপের গাড়িচালক। ঘটনার সময় গাড়িচালক ও উপস্থিত কয়েকজন পুলিশে খবর দেন। ওই ব্যক্তিতে পুলিশের হাতে তুলে দেন তাঁরা। তবে আরজেডি নেতার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তাকে এখনও গ্রেপ্তার করা হয়নি।

ঘটনার পর রাজ্যের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিতে প্রশ্ন তুলেছেন তেজপ্রতাপ। তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, রাজ্যে যদি বিধায়ক ও সাংসদরাই নিরাপদ না হন, তবে সাধারণ মানুষ কী করে নিরাপদে থাকবেন?

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে