১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  সোমবার ৩ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শ্রীনগরে IED বিস্ফোরণে মৃত্যু টেম্পো চালকের, নাশকতার দায় স্বীকার জঙ্গি সংগঠনের

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: April 6, 2022 6:07 pm|    Updated: April 6, 2022 6:07 pm

Tempo driver killed in IED blast in Srinagar | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের উত্তপ্ত উপত্যকা। জম্মু ও কাশ্মীরে (Jammu and Kashmir) নাশকতায় মৃত্যু হল এক টেম্পো চালকের। জানা গিয়েছে, এদিন শ্রীনগরের (Srinagar) বোটনিক্যাল গার্ডেনের (Botanical Garden) কাছে বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় ওই টেম্পো চালকের। বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি সংগঠন টিআরএফ (TRF)। তারা ফের নাশকতা চালাবে বলে হুঁশিয়ার দিয়েছে। 

বুধবার বোটানিক্যাল গার্ডেনের কাছে একটি ‘সিলিন্ডার ব্লাস্ট’ হয়, তাতেই হয়েছে ওই টেম্পো চালকের। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, পার্কিং এলাকার কাছে চালক গাড়ির পিছনের দরজা খুলতেই তীব্র বিস্ফোরণ হয়। কেঁপে ওঠে এলাকা। মারাত্মক জখম হন চালক। দ্রুত তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। যদিও হাসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়।

[আরও পড়ুন: আদানি না আম্বানি? কে বেশি ধনী? দেখে নিন ফোর্বসের প্রকাশিত নয়া তালিকা]

ঘটনার কিছু পরে জঙ্গি সংগঠন টিআরএফ বিস্ফোরণের দায় স্বীকার করে। উল্লেখ্য, টিআরএফ লস্কর (Lashkar-E-Taiba) ঘনিষ্ট জঙ্গি সংগঠন। নিজেদের বিবৃতিতে টিআরএফ জানিয়েছে, “শ্রীনগরে আচমকা হামলা চালানো হবে বলে আগেই হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছিল। টিআরএফের ক্যাডার বোটানিক্যাল গার্ডেন এলাকায় আইইডি (IED) বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। এর মাধ্যমে বার্তা দেওয়া হল যে কাশ্মীর একটি বিতর্কিত এলাকা। যেখানে ফ্যাসিবাদী শাসক জোরপূর্বক স্বাভাবিক পরিস্থিতি আছে বলে প্রমাণ করা চেষ্টা করছে।”

এইসঙ্গে জঙ্গি সংগঠনটি হুঁশিয়ারি দিয়েছে, ফের বিস্ফোরণ ঘটনো হবে। এরপর তাদের টার্গেট কাশ্মীরে ঘুরতে আসা সাধারণ পর্যটক। এদিকে ঘটনার পরেই তদন্ত নেমেছে পুলিশ। এলাকা ঘিরে ফেলে বিস্ফোরক উদ্ধারে তল্লাশি চালানো হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: ইডির নিশানায় দলের নেতারা! দিল্লিতে মোদির দ্বারস্থ শরদ পওয়ার]

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কাশ্মীরে (Kashmir) জেহাদিদের টার্গেট হচ্ছেন ভিনরাজ্যের শ্রমিকরা। গত রবিবার রাতে জঙ্গিদের গুলিতে প্রাণ গিয়েছিল দুই শ্রমিকের। সোমবারও পুলওয়ামা এলাকায় দুই পরিযায়ী শ্রমিককে লক্ষ্য করে গুলি চালানো হয়। যদিও সেদিন প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। দু’জনই গুরুতর জখম হন। বর্তমানে তাঁরা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এদিকে ওই দিনের ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে শ্রীনগরে (Srinagar) সন্ত্রাসবাদীর গুলিতে শহিদ হন আধা সামরিক বাহিনীর এক জওয়ান। জখম হয়েছেন আরও একজন আধাসেনা জওয়ান।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে